জোড়া কাস্তের ছাপযুক্ত লাল উলের কোট (বর্মের উপরে পরিধেয়, জিন-বাওরি)
(Jin-baori Shojo-hi Rashaji Chigai-kamamon)

জাপানের ইতিহাসে পঞ্চদশ শতকের শেষভাগ থেকে সপ্তদশ শতক পর্যন্ত সময়ে একাধিক লড়াইের ঘটনা ঘটেছে। তৎকালীন সমরনায়করা যুদ্ধক্ষেত্রে নিজেদের স্বতন্ত্রভাবে উপস্থাপনের লক্ষ্যে আলঙ্করিক কোনকিছু পরিধানের ব্যাপারে একে অপরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতেন। বিশেষ করে অধিনায়ক পর্যায়ের সমর নেতারা নিজেদের তুলে ধরতে উজ্জ্বল নকশাযুক্ত বর্ণিল যুদ্ধকোট বা জিনবাওরি পরিধান করতেন। এই প্রতিবেদনে টকটকে লাল রঙের যে যুদ্ধ কোটের কথা তুলে ধরা হয়েছে সেটির পেছনের দিকে আড়াআড়ি ভাবে রাখা জোড়া কাস্তের সাহসী নকশা ব্যবহার করা হয়েছে। আর এর সামনের দিকের অংশে শিন্তো মন্দিরের প্রবেশদ্বারের আদলে নকশা ব্যবহারের মাধ্যমে দেবতাদের কাছে স্বর্গীয় নিরাপত্তা চাওয়ার যোদ্ধার একান্তই নিজস্ব মনস্কামনা প্রকাশ পেয়েছে। মূল্যবান রঞ্জকের সাহায্যে রঙ করা ইউরোপীয় উলে বোনা এই পোশাকটি সম্ভবত পর্তুগিজদের সঙ্গে ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনার ফলে জাপানে এসেছে। পোশাক তৈরিতে এমন মূল্যবান কাপড়ের ব্যবহারের মাধ্যমেও সমরনেতাদের শক্তিমত্তার প্রকাশ ঘটত। সেই সময়ে জাপানে মারাত্মক যুদ্ধ-বিগ্রহের মধ্যেও যোদ্ধাদের লালিত সৌন্দর্যবোধকে আবিষ্কার করা হয়েছে এই প্রতিবেদনে।