গলদা চিংড়ির ধাতব প্রতিমূর্তি
(Jizai Ise-ebi okimono)

কাপড়ে আঁকা নকশার উপরেই মূলত জাপানি নারীদের ঐতিহ্যবাহী পোশাক কিমোনোর সৌন্দর্য নির্ভরশীল। কোন কোন কিমোনোর কাপড় আবার চিত্র আঁকার পট হিসেবে ব্যবহৃত হয় যেখানে কাপড়ের উপরে সরাসরি তুলি দিয়ে শিল্পী চিত্র ফুটিয়ে তোলেন। এই পদ্ধতিতে সৃষ্ট অমূল্য এক কিমোনোর কথা তুলে ধরা হয়েছে প্রতিবেদনে। কিমোনোর উপরে নকশা আঁকার কাজ করেছেন অষ্টাদশ শতকের বিখ্যাত শিল্পী ওগাতা কোওরিন। সাদামাটা নকশা আর সীমিত সংখ্যক রঙের ব্যবহারে আঁকা বুনো শরতের চমৎকার ফুলের মাধ্যমে কোওরিনের অসামান্য শিল্পী সত্তার পরিচয় মেলে। শিল্পী কোওরিন জন্মেছিলেন কিয়োতোর অন্যতম প্রসিদ্ধ কিমোনো নির্মাতা পরিবারে। তথাপি অজ্ঞাত কারণে কিমোনোতে নকশা আঁকার কাজ তিনি তেমন একটা করেননি। তার বয়স যখন চল্লিশের কোঠায়, তখন তিনি এদো অঞ্চলে নতুন আবাস গড়েন। সেখানে থাকাকালীন তিনি এই কিমোনোটির নকশা করেছিলেন। এই অসামান্য শিল্পকর্মটি সৃষ্টির পেছনে তৎকালীন সময়েরর ফ্যাশন থেকে শুরু করে নতুনভাবে গড়ে ওঠা শহরের নানান খুঁটিনাটি বিষয় ভূমিকা রেখেছিল।