প্রাচীন আসুকা’র রহস্য উন্মোচন
ষষ্ঠ শতাব্দীর শেষ নাগাদ থেকে ১০০ বছরেরও বেশি সময় ধরে নারা জেলার আসুকা ছিল জাপানের রাজনীতি ও সংস্কৃতির কেন্দ্রস্থল। সেখানে বিকশিত আধুনিক সভ্যতা বিশেষ করে এর রহস্যজনক পাথরের কাঠামোর মত অনেক কিছুকে পেছনে ফেলে এগিয়ে গেছে। ব্যাপক সংখ্যক ভাস্কর্য অসংখ্য ধারণার জন্ম দিয়েছে। অভিনেতা লুক ব্রিজফোর্ড এইসব পাথরের কাঠামো কারা কেন তৈরি করেছেন তা খুঁজে দেখার চেষ্টা করেছেন এবং অন্যান্য ঐতিহাসিক স্থানও ঘুরে দেখেছেন। (প্রতিবেদনটি প্রথম প্রচারিত হয় ২০২০ সালের ৩১ মার্চ।)
অভিনেতা লুক ব্রিজফোর্ড
ষষ্ঠ শতাব্দীর শেষভাগে নির্মিত “আসুকাদেরা মন্দির”। এটি জাপানের প্রথম বৌদ্ধ মন্দির চত্ত্বর। দেশের অন্যতম প্রাচীন প্রায় ৩ মিটার দীর্ঘ একটি বৌদ্ধ মূর্তি এই মন্দিরে প্রার্থনার জন্য স্থাপন করা হয়।
সম্ভবত একজন প্রভাবশালী ব্যক্তির সমাধি “ইশিবুতাই কোফুন সমাধিস্তুপ” নির্মাণ করা হয় সপ্তম শতাব্দীর প্রথমদিকে। এই বিশাল পাথরটির মোট ওজন অনুমান করা হয় ২ হাজার টনেরও বেশি।
“মাসুদানোইওয়াফুনে (মাসুদা পাথরের জাহাজ)” খোদাই করা হয় একটি একক প্রস্তর থেকে। ধারণা করা হয় এটির ওজন কয়েক শো টন।