ওকিনাওয়া থেকে ইউক্রেন পর্যন্ত শান্তির জন্য প্রার্থনা
এই পর্বে আছেন ওকিনাওয়ায় বসবাস করা ইউক্রেনের একজন নাগরিক কাতারিন হোনমা। ইউক্রেনে রাশিয়ার আক্রমণ তার দৈনন্দিন জীবনযাত্রা পরিবর্তন করার আগ পর্যন্ত, একজন প্রকৌশলী হিসেবে কাজ করার পাশাপাশি, তিনি ওকিনাওয়ায় একটি শান্ত জীবন উপভোগ করছিলেন এবং স্থানীয়ভাবে উৎপাদিত গাজর দিয়ে পাউরুটি বেক করছিলেন। এটি কাতারিনের দু’টি বাড়ি, ইউক্রেন এবং ওকিনাওয়াকে সংযুক্ত করা এক কাহিনী। (প্রতিবেদনটি প্রথম প্রচারিত হয় ২০২২ সালের ৭ জুন।)
দক্ষিণ ইউক্রেনের একটি বন্দরনগরী ওদেসা থেকে এসেছেন কাতারিন। তিনি ১৯৯২ সালে জাপানে আসেন এবং বর্তমানে ওনিকাওয়া দ্বীপের ইতোমান শহরে বসবাস করছেন।
প্রতিদিন কাতারিন তার রান্নাঘরে গাজরের পাউরুটি বেক করেন। তিনি সাধারণত বিক্রি করার জন্য ব্যবহৃত না হওয়া আকৃতি ঠিক না থাকা বা দাগ থাকা ইতোমানে উৎপাদিত গাজর ব্যবহার করেন।
রাশিয়ার আক্রমণের কথা জেনে, কাতারিন তার ইউক্রেনে থাকা বন্ধুদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার জন্য তাদের কাছে ফোন করা অব্যাহত রেখেছেন।
কাতারিনকে নিয়ে উদ্বিগ্ন এইমোরি মিৎসুরু (বামে) তাকে একটি স্থানে নিয়ে যান যেখানে যুদ্ধের তিক্ত অভিজ্ঞতা থাকা ওকিনাওয়াবাসীরা বিশ্বের শান্তির জন্য প্রার্থনা করেন।