নতুন দেশ, নতুন জীবন, নতুন স্বপ্ন
এবারের কাহিনি আবর্তিত হয়েছে কিউবা’র মাউরিসে তোরালবা’কে নিয়ে। তিনি দক্ষিণ-পশ্চিম জাপানের মিইয়াযাকি জেলার মিইয়াকোনোজো শহরের একটি হাইস্কুলে সহায়ক পিই শিক্ষক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন। এক সময়কার কিউবা’র প্রতিশ্রুতিশীল ভলিবল খেলোয়াড় মাউরিসে তরুণ বয়সেই মারাত্মক মেরুদণ্ডের হার্নিয়ার কারণে তার প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্যারিয়ার ছেড়ে দিতে বাধ্য হন। এরপরে, তিনি একজন জাপানি নারীকে বিয়ে করেন। বর্তমানে, তিনি তার দ্বিতীয় মাতৃভূমিতে নতুন এক স্বপ্ন পূরণের চেষ্টা করছেন।
১৯৫ সেন্টিমিটার দীর্ঘ মাউরিসে কিউবা’র জাতীয় দলের সদস্য হিসেবে বিবেচিত হন ১৬ বছর বয়সে। এই দলটি টানা ৩ বছর নর্থ এন্ড সেন্ট্রাল আমেরিকান চ্যাম্পিয়নশিপ’এ জয়লাভ করে।
যেহেতু তিনি তার জীবন ক্রীড়ার পিছনে নিয়োজিত করেছেন, তাই মাউরিসে তার নিজস্ব প্রশিক্ষণ দর্শন গড়ে নিয়েছেন: যাই হোক না কেন তিনি তার শিক্ষার্থীদের উপর কখনই রাগ করবেন না।
সালসা পছন্দ করা তার স্ত্রী নাহোকো একজন দন্তচিকিৎসক। যখন তিনি কিউবা গিয়েছিলেন, তখন তাদের দেখা হয়।