বিশ্ববিদ্যালয়ের বিনিময় ও বৈচিত্র্যের প্রতিপালন: কিয়োতো সেইকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রেসিডেন্ট উসুবি সাকো
জাপানের কোন বিশ্ববিদ্যালয়ে এবারই প্রথম আফ্রিকা থেকে আসা উসুবি সাকো প্রেসিডেন্ট হিসেবে কাজ করছেন। সাকো বিদেশ থেকে জাপানে আসা বিদেশি শিক্ষার্থীদের সংখ্যা বাড়ানোর পাশাপাশি জাপানি শিক্ষার্থী ও বিদেশী শিক্ষার্থীদের বিনিময়ের দিকেও সবিশেষ নজর দেন। কিন্তু বৈশ্বিক মহামারী বিভিন্ন বৈচিত্র্যের সন্ধানে থাকা একটি বিশ্ববিদ্যালয়ের তার লক্ষ্যপূরণকে কঠিন করে তুলছে।
মালি’তে জন্মগ্রহণ করা উসুবি সাকো ২০১৮ সালে দুইজন জাপানি অধ্যাপকের সাথে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হন।
১৯৯১ সালে জাপানে এসে কিয়োতো বিশ্ববিদ্যালয়ে স্নাতোকোত্তর ডিগ্রিতে লোকজনের মধ্যে বিনিময় প্রসারিত করা স্পেস সংক্রান্ত ডিজাইন নিয়ে গবেষণা করেন।
সাকো গভীরভাবে বিশ্বাস করেন, সরাসরি অভিজ্ঞতা থেকে লাভ করা শিক্ষাই প্রকৃত শিক্ষা। এটা এমন একটা কিছু যা তিনি শিক্ষার্থীদের সাথে বিনিময়ের মাধ্যমে শিখেছেন।