টোকিও'র স্বাদের খাবার -ফু-
“টোকিও’র স্বাদের খাবার” অনুষ্ঠানে আমরা দীর্ঘদিন ধরে “টোকিও’র রান্নাঘর” হিসেবে পরিচিত ৎসুকিজি বাজার এবং এর স্থলাভিষিক্ত হওয়া তোইয়োসু বাজার সহ এই শহরের বিভিন্ন বাজারে পাওয়া যাওয়া বিস্তৃত পরিসরের খাবারের সাথে আপনাদের পরিচয় করিয়ে দেই। আজকের প্রতিবেদনে আমরা ফু’এর দিকে নজর দেব। এটি ময়দা দিয়ে তৈরি একটি খাবার। জাপানে শত শত বছর আগে থেকে ফু খাওয়া হয়ে আসছে। এতে প্রচুর প্রোটিন রয়েছে এবং ক্যালোরি কম। বিভিন্ন আকার এবং রঙে এগুলো পাওয়া যায় এবং তা বিভিন্ন খাবার পদে বাহারি রঙের মৌসুমী ছোঁয়া এনে দেয়। প্রায় প্রতিদিন ফু খেয়ে থাকেন এমন অনেক লোক কানাযাওয়া’তে থাকেন। আমরা কানাযাওয়া পরিদর্শনে এসেছি। আমরা আরও দেখার চেষ্টা করব কিভাবে ফু দিয়ে সব ধরনের পদ তৈরি করা যায়, এমনকি মাংসকে ডেজার্টের বিকল্প হিসেবেও ব্যবহার করা যায়। (প্রতিবেদনটি প্রথম প্রচারিত হয় ২০২০ সালের ২১ ফেব্রুয়ারি।)
ৎসুকিজি উন্মুক্ত বাজারে অনেক ধরনের ফু পাওয়া যায়।
এনএইচকে ওয়ার্ল্ড জাপানের প্রতিবেদক জ্যাক ফ্রিম্যান গ্লুটেন ও ময়দা তৈরি করে ঝলসানো কুরুমা-বু খেয়ে দেখলেন।
লেচি দিয়ে বয়নের সুতো তৈরি করা তা দিয়ে তৈরি তেমারি-ফু
ফু ফ্রেঞ্চ টোস্ট