14মি. 07সে.

“মাৎসুরানোমিয়ার উপকথা” (Matsuranomiya Monogatari)

খ্যাতনামা জাপানি শিল্পকর্ম

সম্প্রচারের তারিখ 8 ডিসেম্বর, 2016 পাওয়া যাবে 31 মার্চ, 2029 পর্যন্ত

দ্য টেল অব মাৎসুরানোমিয়া’ লেখা হয়েছিল দ্বাদশ শতকের শেষভাগে। গল্পের লেখক সে সময়ের অভিজাত শ্রেণির সদস্য এবং সাহিত্য বিষয়ে পণ্ডিত, ফুজিওয়ারা-নো-তেইকা’। গল্পটি অভিজাত শ্রেণির এক জাপানি বালককে ঘিরে, যে চীন সফরে গিয়ে অসামান্য সব অভিজ্ঞতা লাভ করে। পূর্ববর্তী সাহিত্যকর্মের সমৃদ্ধ ইঙ্গিত প্রদানের সময় যুদ্ধের বর্ণনা তেইকা’র নিজের সঙ্ঘাতের অভিজ্ঞতা এবং জাপানে যোদ্ধা শ্রেণির আবির্ভাবের প্রতিফলন। এ অনুষ্ঠানে আমরা তেইকা’র সময়ের প্রায় শতবর্ষ পরে তৈরি তার গল্পের একটি বইয়ের প্রতিলিপি সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরেছি। পরবর্তী বছরগুলোতে জাপানের ইতিহাস আমূল পরিবর্তনের এক সন্ধিক্ষণ এসে পৌঁছায়। বইয়ের এই প্রতিলিপি দেখে মনে হয় যে, সাবেক অভিজাত সংস্কৃতির নানান দিক সম্পর্কে তথ্য তুলে ধরার উদ্দেশ্যে এটি তৈরি করা হয়েছিল। চমৎকার নক্শাদার কাগজ তৈরিও একসময় থেমে যায়। অন্যদিকে, বইটিতে ব্যবহৃত বৈশিষ্ট্যমণ্ডিত অক্ষরগুলো সম্ভবত লেখা হয়েছে নতুন পাঠকদের জন্য, যাতে যোদ্ধা এবং অন্যান্যরাও এর রস আস্বাদনে সক্ষম হন।

photo

অনুষ্ঠানের রূপরেখা