২০১১ সালের পরমাণু দুর্ঘটনার জন্য টেপকো’র সাবেক নির্বাহীদের দোষারোপ করা মামলাটি এখন সর্বোচ্চ আদালতে

ফুকুশিমা দাইইচি বিদ্যুৎ কেন্দ্রে ২০১১ সালের পরমাণু দুর্ঘটনার জন্য বিদ্যুৎ পরিষেবা কোম্পানিটির তিনজন সাবেক নির্বাহীকে খালাস দেওয়া উচ্চ আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে মঙ্গলবার জাপানের সুপ্রিম কোর্ট বা সর্বোচ্চ আদালতে একটি আপিল দায়ের করা হয়েছে।

টোকিও বিদ্যুৎ শক্তি কোম্পানি বা টেপকোর সাবেক চেয়ারম্যান কাৎসুমাতা ৎসুনেহিসা এবং সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট তাকেকুরো ইচিরো এবং মুতো সাকায়ে’কে পেশাগত অবহেলার কারণে মৃত্যু এবং আঘাত পাওয়ার ঘটনার অভিযোগে ২০১৬ সালে অভিযুক্ত করা হয়। এলোমেলোভাবে বাছাইকৃত নাগরিকদের সমন্বয়ে গঠিত একটি প্রসিকিউশন তদন্ত প্যানেলের সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে তাদের অভিযুক্ত করা হয়।

২০১১ সালের মার্চ মাসে একটি মহাভূমিকম্প এবং তৎপরবর্তী ৎসুনামি আঘাত হানার পরে, বিদ্যুৎ কেন্দ্রটিতে পরমাণু জ্বালানি গলে যাওয়ার কারণে নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নেওয়ার সময় উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় জেলা ফুকুশিমার একটি হাসপাতালের কয়েকজন রোগী’সহ অন্যান্যদের মৃত্যু ঘটে।

৭০ ও ৮০ বছরের কোঠার বয়সী সাবেক এই নির্বাহীরা এরকম ৪৪ ব্যক্তির মৃত্যুর জন্য দায়ী বলে অভিযুক্ত হন।

টোকিওর উচ্চ আদালত ২০১৯ সালে টোকিওর জেলা আদালতের অনুরূপ রায়ের ধারাবাহিকতায় গত বুধবার এই তিন ব্যক্তি দোষী নন বলে রায় দেয়।

রায় দেওয়ার সময়, উচ্চ আদালত এই বিষয়টি বিবেচনায় নেয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করে যে বিশালাকারের ঐ ৎসুনামির পূর্বাভাস দেওয়ার কোনও উপায় ছিল না বলে, দুর্ঘটনা এড়াতে বিদ্যুৎ কেন্দ্রের কার্যক্রম স্থগিত করার কোনো বাধ্যবাধকতা বিবাদীদের ছিল না।

এদিকে, মামলাটিতে কৌঁসুলি হিসেবে ভূমিকা রাখা আদালত-নিযুক্ত আইনজীবীরা রায়ের পরে জানান যে এই সিদ্ধান্তটি মূলত বৈজ্ঞানিকভাবে এখনও পূর্বাভাসযোগ্য নয়, এরকম ভূমিকম্প এবং ৎসুনামির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার প্রয়োজনীয়তাকে অস্বীকার করার সমতুল্য।