যুক্তরাষ্ট্রের সাথে মিলে তেলের মজুদ ছেড়ে দেবে জাপান

জাপান সরকার বাইডেন প্রশাসনের কাছ থেকে আসা একটি অনুরোধে সাড়া দিয়ে নিজেদের রাষ্ট্রীয় তেলের মজুদ ছেড়ে দেয়ার নজিরবিহীন এক পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।

জাপান হচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র সহ বেশ কয়েকটি প্রধান তেল ব্যবহারকারী দেশের একটি, অশোধিত তেলের মূল্য বৃদ্ধি সামাল দিতে একই পদক্ষেপ যারা গ্রহণ করছে।

জাপানের প্রধানমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও বলেছেন, “জাপান সরকার রাষ্ট্রের মজুদ তেলের কিছু অংশ বিক্রি করে দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে”।

নিজেদের মজুদ থেকে সরকার কয়েক লক্ষ ব্যারেল বাজারে ছেড়ে দেবে। এই সরবরাহ হচ্ছে বেশ কয়েকদিন ধরে বজায় থাকার মত যথেষ্ট পরিমাণের।

জাপানের তেলের মজুদ ১৪৫ দিন ধরে দেশের অভ্যন্তরের চাহিদা পূরণ করতে পারার সম-পরিমাণের।

হোয়াইট হাউস বলেছে যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপ হচ্ছে জাপান, চীন, ভারত, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাজ্য সহ অন্যান্য দেশের সম পর্যায়ে গ্রহণ করা।

প্রশাসন বলেছে এটা হবে প্রথমবারের মত সমন্বিতভাবে এধরণের তেল ছেড়ে দেয়া। যুক্তরাষ্ট্র আগামী কয়েক মাস সময় ধরে পাঁচ কোটি ব্যারেল বাজারে সরবরাহ করবে।

তেল উৎপাদনকারী দেশগুলোর সংগঠন ও সেই সাথে রাশিয়ার মত সংগঠনের সদস্য না হওয়া প্রধান দেশ ডিসেম্বর মাসে উৎপাদন বৃদ্ধি না করার সিদ্ধান্ত নেয়ায় অশোধিত তেলের মূল্য উচ্চ পর্যায়ে বজায় থাকবে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে।