অন্যান্য দেশের সাথে তেলের মজুত ছেড়ে দেবে যুক্তরাষ্ট্র

তেলের মূল্য বৃদ্ধি কমিয়ে আনায় সাহায্য করতে যুক্তরাষ্ট্র দেশের মজুত জ্বালানি তেলের কিছু অংশ বাজারে ছেড়ে দেবে।

মঙ্গলবার প্রচারিত এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস বলেছে এই পদক্ষেপ চীন, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া ও যুক্তরাজ্য সহ প্রধান তেল ব্যবহারকারী দেশগুলোর সাথে সঙ্গতিপূর্ণ। ঊর্ধ্বতন মার্কিন কর্মকর্তারা বলছেন, এটা হবে প্রথমবারের মত তেলের মজুত ছেড়ে দেয়ায় নিতে যাওয়া সমন্বিত পদক্ষেপ।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র আগামী কয়েক মাস সময় ধরে ৫ কোটি ব্যারেল তেল ছাড়ার জন্য নির্ধারণ করে রাখবে।

এতে আরও বলা হয়েছে প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন প্রয়োজন হলে অতিরিক্ত পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন। কিছু বিশ্লেষক প্রত্যাশা করছেন যে তেল রপ্তানিকারক দেশ সমূহের সংগঠন ওপেক ও সেই সাথে সংগঠনের সদস্য না হওয়া রাশিয়ার মতো প্রধান কয়েকটি দেশ ডিসেম্বর মাসে উৎপাদন বৃদ্ধি না করার সিদ্ধান্ত নেয়ায় অশোধিত তেলের মূল্য উচ্চ পর্যায়ে বজায় থাকবে।

যুক্তরাষ্ট্রে পেট্রলের মূল্য সাত বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে রয়েছে এবং ভোগ্য পণ্যের মূল্য তিন দশকের মধ্যে সবচেয়ে দ্রুত গতিতে বৃদ্ধি পেয়েছে।

প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রতি সমর্থনের হার তিনি দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকে সর্ব নিম্ন মাত্রায় নেমে এসেছে। মনে করা হচ্ছে যে তেলের মজুত ছেড়ে দেয়া হচ্ছে জনগণের জীবনে ক্ষতিকর প্রভাব কমিয়ে আনায় প্রশাসন যে কাজ করে চলেছে তা দেখানোর একটি চেষ্টা।