ঝামা পাথর হয়তো আগামী মাসেও ইযু দ্বীপমালায় পৌঁছে যেতে পারে

এক সমীক্ষায় দেখা যাচ্ছে যে, ঝামা পাথর হয়তো আগামী মাসেও জাপানের তীরে পৌঁছানো অব্যাহত থাকবে।

জাপান সামুদ্রিক-ভূমি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি এজেন্সি পরিচালিত এক সিমুলেশনে দেখা যাচ্ছে যে, ওকিনাওয়া ও আমামি এবং প্রশান্ত মহাসাগরের ইযু দ্বীপমালার কিছু অংশ’সহ দক্ষিণ-পশ্চিম অঞ্চলসমূহ ভাসমান পাথরে ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

এজেন্সিটি সোমবার সাম্প্রতিক ভূ-উপগ্রহ থেকে পাওয়া উপাত্ত ব্যবহার করে, ঝামা পাথরের ভেসে যাওয়া সংক্রান্ত সিমুলেশনের ফলাফল প্রকাশ করে।

গত আগস্ট মাসে প্রশান্ত মহাসাগরের পানির নিচের এক অগ্ন্যুৎপাতে ব্যাপক পরিমাণ ঝামা পাথর বেরিয়ে আসে যা অক্টোবর মাস থেকে ওকিনাওয়া এবং আমামি’র সমুদ্রতীরে ভেসে আসছে।
ঝামা পাথর টোকিও’র প্রশাসনিক এলাকার অন্তর্ভুক্ত ইযু দ্বীপমালার কোন কোন দ্বীপেও এসে পৌঁছাচ্ছে।

এই সিমুলেশনে দেখা যাচ্ছে যে, ব্যাপক পরিমাণে ঝামা পাথর সম্ভবত ডিসেম্বর মাসের প্রথমদিকে পূর্বদিকের সাগর পর্যন্ত ভেসে যেতে পারে।

ওকিনাওয়া এবং আমামি অঞ্চলের পরিস্থিতি গুরুতর অবস্থায় রয়েছে। ঝামা পাথর সেখানকার উপকূল এবং আশেপাশের সমুদ্রে কমপক্ষে সিমুলেশনে প্রাপ্ত সর্বশেষ তারিখ ৯ই ডিসেম্বর পর্যন্ত থাকবে বলে মনে করা হচ্ছে।

এজেন্সির ঊর্ধ্বতন গবেষক মিইয়ামা তোরু ইঙ্গিত দেন যে, সিমুলেশনে দৃশ্যমান হওয়া পাথর থেকেও বেশি পরিমাণে পাথর হয়তো ভেসে আসতে পারে, কেননা কিছু কিছু হয়তো ভূ-উপগ্রহ সনাক্ত করতে পারেনি। তিনি এও বলেন, পাথর হয়তো ইযু দ্বীপমালায় অব্যাহতভাবে ভেসে আসতে পারে, সেজন্য সতর্ক থাকার প্রয়োজন রয়েছে।