তাকাহামা পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে মক্স জ্বালানি এসে পৌঁছেছে

জাপান সাগরের উপকূলে অবস্থিত ফুকুই জেলার তাকাহামা পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রে পুনঃপ্রক্রিয়াজাত পরমাণু জ্বালানির এক চালান ফ্রান্স থেকে বুধবার এসে পৌঁছেছে।

বিদ্যুৎ কেন্দ্র পরিচালনাকারী কানসাই বিদ্যুৎ শক্তি কোম্পানি, মক্স বা মিশ্র অক্সাইড জ্বালানি প্রস্তুতের জন্য এক ফরাসি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দিয়েছিল। ব্যবহৃত পরমাণু জ্বালানি থেকে পুনঃপ্রক্রিয়াজাত ইউরেনিয়াম এবং প্লুটোনিয়ামের এক সংমিশ্রণ হল ঐ জ্বালানি।

জ্বালানি বহন করে নিয়ে আসা একটি জাহাজ সকাল ৮টা নাগাদ বিদ্যুৎ কেন্দ্রের এক জেটিতে এসে নোঙ্গর ফেলে এবং চালান নামিয়ে ফেলার কাজ শুরু হয়। জাপান উপকূল রক্ষীর একটি জাহাজ এবং স্থানীয় পুলিশ বিদেশ থেকে আসা ঐ জাহাজটিকে পাহারা দেয়, যেটাতে সম্ভাব্য সন্ত্রাসী হামলা মোকাবিলা করার ব্যবস্থা রয়েছে।

২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর মাসের পর থেকে এই চালান হল বিদেশ থেকে এসে পৌঁছানো প্রথম মক্স জ্বালানি।

মক্স জ্বালানি ব্যবহার করে উৎপাদিত শক্তিকে বলা হয়ে থাকে প্লুথার্মাল শক্তি উৎপাদন, যা হচ্ছে জাপানের পরমাণু জ্বালানি পুনর্ব্যবহার নীতির এক মুখ্য উপাদান। জাপান এখনো পর্যন্ত দেশে পুনঃপ্রক্রিয়াকরণ স্থাপনা গড়ে তুলতে না পারায় মক্স জ্বালানি উৎপাদনের জন্য তারা বিদেশি প্রতিষ্ঠানগুলোর উপর নির্ভরশীল।

প্রায় দুই কিলোমিটার দূরে ঐ কেন্দ্রের সম্মুখে অবস্থিত উপকূলে, চালানের বিরোধিতা করে প্রায় ২০ জন আন্দোলনকারী জমায়েত হয়েছিলেন। তারা বলেন, প্রচলিত জ্বালানির তুলনায় মক্স জ্বালানি আরও বিপজ্জনক কেননা এটি খুব গরম হয়ে যায় এবং ঠান্ডা হতেও অনেক বেশি সময় লাগে।

জাহাজটি দৃষ্টিগোচর হলে চালানের প্রতিবাদ জানিয়ে তারা একটি ব্যানার প্রদর্শন করেন।