চার বছর আট মাসের মধ্যে ইয়েনের মূল্য সর্বনিম্নে

গত চার বছর আট মাসের মধ্যে মার্কিন ডলারের বিপরীতে ইয়েন সর্বাপেক্ষা দুর্বল পর্যায়ে গিয়ে পৌঁছেছে।
বুধবার টোকিওতে ডলারের বিপরীতে জাপানি মুদ্রার মূল্য ১১৪’র উপরের পরিসীমার চারপাশে ঘোরাফেরা করছিল।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে দেখা দেয়া মুদ্রাস্ফীতি বিষয়ক উদ্বেগের কারণে দীর্ঘমেয়াদি সুদের হার বৃদ্ধি পাওয়ায় ব্যবসায়ীরা ইয়েন বিক্রি করে ডলার কিনে নিচ্ছেন।

বিশ্লেষকরা বলছেন, আমেরিকায় খুচরা বিক্রি শক্তিশালী হয়ে উঠেছে বলে মঙ্গলবার জানা যাওয়ার পর ডলার কিনে নেয়ার হার বৃদ্ধি পায়।
তারা বলছেন, উচ্চ সুদের হার ডলারে থাকা সম্পদ থেকে আরও ভালো ফল পাওয়ার প্রত্যাশাকে বাড়িয়ে দিচ্ছে।

ইয়েন দুর্বল হয়ে পড়ার কারণে বিদেশে জাপানি পণ্যের মূল্য কমে যাওয়ায় রপ্তানি ব্যবসার সাথে জড়িত জাপানি ব্যবসায়ীদের জন্য তা সুবিধা করে দেবে। তবে এর খারাপ দিকটি হল আমদানি করে থাকা তেল এবং অন্যান্য কাঁচামালের মূল্য বৃদ্ধি পাবে।

অপরিশোধিত তেল এবং প্রাকৃতিক গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধি পেয়ে আসছে যার ফলে ইয়েনের মূল্য আরও হ্রাস পেলে পেট্রল সহ অন্যান্য জ্বালানির মূল্য বর্তমানের তুলনায় আরও বেশি বৃদ্ধি পেতে পারে বলে উদ্বেগ দেখা দিচ্ছে। মানুষের আর্থিক অবস্থার উপর এর প্রভাব পড়তে পারে এবং ভোক্তারা ব্যয়ের পরিমাণ আরও কমিয়ে ফেলতে পারেন।