ফেব্রুয়ারি মাসে ১২ বছরের কম বয়সীদের টিকাদান শুরু করতে পারে জাপান

জাপানের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বলছে দ্রুত হলে আগামী ফেব্রুয়ারি মাসে শুরু হওয়ার সম্ভাবনার মধ্যে দিয়ে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় ৫ থেকে ১১ বছর বয়সের শিশুদের অন্তর্ভুক্ত রেখে কোভিড-১৯ টিকাদান কর্মসূচি সম্প্রসারিত করে নিতে পারে।

সেই বয়স-সীমার জন্য টিকাদান সরকার অনুমোদন করবে কিনা তার উপর এটা নির্ভর করছে।

বুধবার মন্ত্রণালয় দেশের বিভিন্ন পৌর এলাকাগুলোকে সেই বয়স-সীমার জন্য টিকাদান শুরুর প্রস্তুতি গ্রহণের জন্য জানায়।

এতে বলা হয়েছে যে কর্মসূচিতে জড়িত প্রতিষ্ঠানকে টিকার কার্যকারিতা এবং শিশুদের নিরাপত্তা সম্পর্কে সম্পূর্ণ ব্যাখ্যা দিতে হবে এবং শিশুর বাবা-মা কিংবা অভিভাবকের সম্মতি নিতে হবে।

একই সাথে টিকা নেওয়া কারও মধ্যে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া দেখা দিলে প্রয়োজনীয় প্রাথমিক চিকিৎসা এসব প্রতিষ্ঠানকে দিতে হবে।

৫ থেকে ১১ বছর বয়সীদের টিকা দেওয়া হবে কিনা, মন্ত্রণালয়ের একটি প্যানেল এখন তা নিয়ে বিতর্ক চালাচ্ছে।

গত সপ্তাহে যুক্তরাষ্ট্রের ওষুধ কোম্পানি ফাইজার সেই বয়স-সীমার শিশুদের জন্য এদের টিকা ব্যবহারের অনুমোদন চেয়ে আবেদন করেছে। ফাইজার সেই টিকা কোম্পানির জার্মান অংশীদার বিয়োনটেকের সাথে যৌথভাবে তৈরি করেছে।