জাপানের অর্থনৈতিক সম্ভাবনার পুনর্মূল‍্যায়ন করেছেন বিশ্লেষকরা

কোভিড-১৯’এর প্রভাব থেকে জাপানের অর্থনীতির ঘুরে দাঁড়াতে প্রত্যাশার চেয়ে বেশি সময় লাগতে পারে বলে বিশ্লেষকরা সতর্ক করে দিয়েছেন। গতকাল সোমবার প্রকাশিত হতাশাজনক জিডিপি সংখ্যার পরে তাদের কাছ থেকে এই সতর্কবার্তা এলো।

মন্ত্রিপরিষদ দপ্তর থেকে প্রাপ্ত উপাত্ত থেকে দেখা যাচ্ছে যে, জুলাই থেকে সেপ্টেম্বর ত্রৈমাসিকে অর্থনীতি বার্ষিক ৩% হারে সঙ্কুচিত হয়েছে। এক্ষেত্রে, অর্থনীতিবিদদের গড় পূর্বাভাস ছিল কেবল শূন্য দশমিক পাঁচ ছয় শতাংশ।

সরকার এখনও অনুমান করছে যে, জিডিপি চলতি বছরের শেষ নাগাদ বৈশ্বিক মহামারীর পূর্বাবস্থায় ফিরে যাবে।

তবে, মিৎসুবিশি ইউএফজে গবেষণা এবং পরামর্শ কেন্দ্রের প্রধান অর্থনীতিবিদ কোবাইয়াশি শিনইচিরো বলছেন, তার জন্য চলমান ত্রৈমাসিকে বার্ষিক ৯.৫% হারে প্রবৃদ্ধি অর্জনের প্রয়োজন হবে।

কোবাইয়াশি এও বলছেন, “সর্বশেষ এই সংকোচন প্রত্যাশার চেয়ে বেশি হওয়ায়, সরকারের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন আরও কঠিন হয়ে পড়েছে”।

তিনি আরও বলছেন, তার কোম্পানি এখন ধারণা করছে যে বৈশ্বিক মহামারীর পূর্বাবস্থায় ফিরে যাওয়ার মত পুনরুদ্ধার অর্জন আগামী বছরের এপ্রিল-জুন ত্রৈমাসিক পর্যন্ত বিলম্বিত হতে পারে।

অশোধিত জ্বালানি তেলের মূল্য এবং সরবরাহ সমস্যা স্বল্পমেয়াদে প্রবৃদ্ধি অর্জনকে বাধাগ্রস্ত করতে পারে এবং নতুন প্রধানমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও তার অর্থনৈতিক পরিকল্পনা প্রণয়নকালীন এটি তার জন্য একটি চ্যালেঞ্জ হিসেবে দেখা দিতে পারে।