অপহৃতদের স্বজনদের কিশিদার সহায়তা কামনা

গত প্রায় ৪০ বছর আগে উত্তর কোরিয়ায় অপহৃত জাপানি নাগরিকদের স্বজনরা, অবিলম্বে তাঁদের প্রিয়জনদের দেশে ফিরিয়ে আনার দাবি জানিয়েছেন।

গতকাল শনিবার টোকিওতে আয়োজিত এক বিশাল সমাবেশে তাঁরা এই দাবি জানান। স্বজনদের এই সমাবেশে, জাপানের প্রধানমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও অংশগ্রহণ করেন।

অপহৃত তাগুচি ইয়ায়েকোর বড় ভাই ইইযুকা শিগেও, তাঁদের প্রিয়জনদের ফিরিয়ে আনার জন্য একটি সময়সূচী নির্ধারণের পাশাপাশি সেই লক্ষ্যে সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপ গ্রহণ করতে সরকারের প্রতি দাবি জানান।

অপহৃত ইয়োকোতা মেগুমির ছোট ভাই ইয়োকোতা তাকুইয়া বলেন, উত্তর কোরিয়ায় অন্য কেউ নয়, শুধুমাত্র দেশটির নেতা কিম জং উনই যেকোন বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করতে পারেন। তিনি এও বলেন যে কিশিদাকে দৃঢ় প্রত্যয় নিয়ে কিমের মুখোমুখি হতে হবে।

যত দ্রুত সম্ভব অপহৃতদের দেশে ফিরিয়ে আনতে সরকারের প্রতি সহায়তার আহ্বান জানানো একটি প্রস্তাব গ্রহণের মাধ্যমে এই সমাবেশের সমাপ্তি টানা হয়। প্রস্তাবটিতে, অপহৃতদের সবাইকে ফিরিয়ে দিতে অঙ্গীকারাবদ্ধ হতে পিয়ংইয়ং’এর প্রতিও আহ্বান জানানো হয়।

এর জবাবে কিশিদা, অপহরণ সমস্যাটির সমাধান তাঁর প্রশাসনের শীর্ষ অগ্রাধিকারের মধ্যে রয়েছে বলে জানান। তিনি, অপহৃতদের স্বজনদের কয়েকজনের বয়স বৃদ্ধির বিষয় বিবেচনায় নিয়ে সমস্যাটি অবিলম্বে সমাধান করতে হবে বলে উল্লেখ করেন।

কিশিদা, কোন ধরনের পূর্বশর্ত ছাড়াই কিমের সঙ্গে মিলিত হতে তাঁর দৃঢ় প্রত্যয় পুনর্ব্যক্ত করে, দেশ দুটির নেতাদের মধ্যে সম্পর্ক গড়ে তুলতে জাপানের পদক্ষেপ গ্রহণ করা গুরুত্বপূর্ণ বলে মন্তব্য করেন।