অর্থনীতিকে চাঙা করে তুলতে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন কিশিদা

জাপানের প্রধানমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও বলেছেন যে দেশকে সম্মুখীন হতে হওয়া বিস্তৃত ধরনের চ্যালেঞ্জের মোকাবিলা করতে দ্রুত নীতিমালা বাস্তবায়ন করবেন তিনি।

দেশের নেতা হিসাবে সংসদে পুনঃনির্বাচিত হওয়ার পর বুধবার কিশিদা জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দেন।

অক্টোবর মাসের শেষে নিম্নকক্ষের নিবার্চনে ক্ষমতাসীন দল স্বস্তিপূর্ণ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভের পর সংসদে পুনঃনির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

কিশিদা বলেন, “নতুন করোনাভাইরাসের সাথে মোকাবিলা করার উপায়কে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দেয়া অব্যাহত থাকবে। নতুন করোনাভাইরাস মোকাবিলার উপায় নিয়ে চলতি সপ্তাহ শেষে সরকার এক সার্বিক চিত্র সঙ্কলন করবে এবং তা জনসম্মুখে উপস্থাপন করবে। সর্বপ্রথমে সংক্রমণের সংখ্যা দ্বিগুণে গিয়ে দাঁড়ালে তার মোকাবিলা করতে পারবে এমন এক চিকিৎসা ব্যবস্থা আমাদের নিশ্চিত করতে হবে।”

কিশিদা বলেন, টিকা থেকে শুরু করে পরীক্ষা এবং খাবার ওষুধ পর্যন্ত ব্যাপক ভিত্তিক ভাইরাস প্রতিরোধ ব্যবস্থা শক্তিশালী করে তুলবেন তিনি।

মহামারির ফলে সৃষ্ট অর্থনৈতিক নেতিবাচক প্রভাবের কারণে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন তাদের সাহায্য করতে তিনি অঙ্গীকারবদ্ধ বলে প্রধানমন্ত্রী জোরের সাথে জানান।

তিনি বলেন, “আগামী সপ্তাহ শেষে সরকার কয়েক লক্ষ কোটি ইয়েনের সমপরিমাণ অর্থনৈতিক পদক্ষেপের এক থোক সঙ্কলন করবে। যত দ্রুত সম্ভব চলতি বছর শেষেই সরকার সম্পূরক বাজেট পাশ করাবে এবং চেষ্টা করবে তা দ্রুত লোকজনের কাছে পৌঁছে দিতে।”

কিশিদা বলেন, ১৮ বা তার কম বয়সী প্রতিটি শিশুর পরিবারকে সাহায্য করার জন্য প্রায় ৯০০ ডলারের ভর্তুকি প্রদানের বিষয়ে ক্ষমতাসীন দল সম্মত হয়েছে।
তিনি আরও বলেন, যেসব পরিবারের বার্ষিক আয় ৮৫ হাজার ডলারের বেশি তাদেরকে এই সাহায্য প্রদান করা হবে না।

পররাষ্ট্র এবং প্রতিরক্ষা নীতিমালা বিষয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন যে জাপান-যুক্তরাষ্ট্র জোট শক্তিশালী করে তোলার লক্ষ্যে এবং অবাধ ও মুক্ত ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় এলাকা বাস্তবায়নে একত্রে কাজ করার জন্য মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের সাথে দ্রুত আলোচনায় মিলিত হতে তিনি আগ্রহী।

প্রধান ক্ষমতাসীন দলের নেতা হিসাবে কিশিদা আরও বলেন যে দেশের বর্তমান সংবিধান সংশোধনের জন্য তিনি প্রচেষ্টা চালাবেন। উল্লেখ্য, ১৯৪৭ সালে কার্যকর হওয়ার পর থেকে সংবিধান সংশোধন করা হয়নি।

তার লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি, জাপানের আত্মরক্ষা বাহিনী সম্পর্কিত একটি বিষয় যোগ করা সহ চারটি ক্ষেত্রে সংশোধনের প্রস্তাব দিচ্ছে।