যৌথভাবে মিথেন নি:সরণ হ্রাসে চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের সম্মতি

চীন এবং যুক্তরাষ্ট্র মিথেন নি:সরণ হ্রাস ও জলবায়ু পরিবর্তন সামাল দেয়ার অন্যান্য প্রচেষ্টায় তাদের সহযোগিতা বৃদ্ধি করে নিতে সম্মত হয়েছে।

জাতিসংঘের কপ-২৬ জলবায়ু সম্মেলনে চলা আলোচনার জবাবে বিশ্বের দুই বৃহত্তম গ্রিনহাউজ গ্যাস নি:সরণকারী দেশ বুধবার যৌথ একটি ঘোষণা প্রচার করে। ২০২০র দশকে নিজেদের জলবায়ু পদক্ষেপ জোরদার করে নেয়ার অঙ্গীকার তারা করেছে।

মিথেন গ্যাস নির্গত হওয়া থেকে কার্বন ডাইঅক্সাইডের চাইতে ২০ গুণ বেশি গ্রিনহাউজ গ্যাস প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় বলে মনে করা হয়।

বিশ্বের গড় তাপমাত্রা বৃদ্ধি শিল্পায়ন-পূর্ব মাত্রার চাইতে ২ ডিগ্রি সেলসিয়াসের বেশি বৃদ্ধি পাওয়ার অনেকটা নিচে ধরে রাখা এবং সর্বোচ্চ মাত্রা ১.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস নির্ধারণ করে নেয়া প্যারিস চুক্তির লক্ষ্য ঘোষণায় নিশ্চিত করে নেয়া হয়।

চীন এবং যুক্তরাষ্ট্র একই সাথে মিথেন নি:সরণ হ্রাসে তাদের চালানো প্রচেষ্টার অংশ হিসেবে সম্মিলিতভাবে মিথেন নি:সরণ পরিমাপ করে দেখায় কাজ করার পরিকল্পনাও করছে। সুনির্দিষ্ট যৌথ জলবায়ু পদক্ষেপ নিয়ে কথা বলার জন্য দুই দেশ আগামী বছরের প্রথমার্ধে আলোচনায় বসার পরিকল্পনা করছে।

চলতি মাসে এর আগে যুক্তরাষ্ট্র মিথেন নি:সরণ কমিয়ে আনার একটি কর্ম পরিকল্পনা ঘোষণা করে।

যৌথ বিবৃতিতে চীনও সাহসী ও বিস্তৃত পরিকল্পনা প্রণয়নে দেশের নির্ধারিত লক্ষ্যের ঘোষণা দিয়েছে।

কার্বন ডাইঅক্সাইড নি:সরণ প্রসঙ্গে দুই দেশ বিদ্যুতের চাহিদা ও সরবরাহের মধ্যে ভারসাম্য গড়ে তোলা এবং জ্বালানি দক্ষতা উন্নত করে নিতে কার্যকর পদক্ষেপ ঠিক করে নেয়ায় সহযোগিতার পরিকল্পনা করছে।

সারা বিশ্বের প্রধান সব সংবাদ মাধ্যম বিশ্বের শীর্ষ দুই দূষণকারী দেশের অপ্রত্যাশিতভাবে উপনীত যৌথ ঘোষণার সংবাদ বিস্ময়ের সাথে প্রচার করেছে।