নিষেধাজ্ঞা ও পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করে তোলা নিয়ে আলোচনায় বসছে ইরান ও যুক্তরাষ্ট্র

ইরান পরমাণু চুক্তির সাথে জড়িত দেশগুলো মার্কিন নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়া এবং ঐ চুক্তি পুনরুদ্ধারের এক পন্থা হিসাবে তেহরানের পরমাণু কর্মসূচি সীমিত করে তোলার বিভিন্ন উপায় নিয়ে আলোচনা করতে সম্মত হয়েছে।

মঙ্গলবার থেকে ভিয়েনাতে শুরু হওয়া আলোচনায় মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র এবং ইরানের প্রতিনিধিরা, ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং আলোচনায় মধ্যস্থতা পালনকারী বিভিন্ন দেশের কর্মকর্তাদের সাথে পৃথক বৈঠকে মিলিত হন।

২০১৮ সালে পরমাণু চুক্তি থেকে ওয়াশিংটনের বেরিয়ে যাওয়া এবং নিষেধাজ্ঞা পুনরায় আরোপ করার পর থেকে দুটি দেশের মধ্যে আলোচনা পুনরায় শুরুর লক্ষ্যে এটি হল প্রথম পুর্নাঙ্গ এক প্রচেষ্টা।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র বেরিয়ে যাওয়ার পর ঐ চুক্তি লঙ্ঘন করে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণ কর্মকাণ্ড ত্বরান্বিত করে তোলে ইরান।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন ঐ চুক্তিতে পুনরায় ফিরে আসতে আগ্রহী।

ইরানের উপ পররাষ্ট্র মন্ত্রী আব্বাস আরাকচি বৈঠকের পর বলেন যে আলোচনা গঠনমূলক ছিল এবং তারা সঠিক দিকে এগিয়ে চলেছেন।

পরবর্তী আলোচনা সম্ভবত শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি আরো উল্লেখ করেন।

হোয়াইট হাউসের মুখপাত্র জেন সাকি আভাস দেন যে আলোচনা খুব জটিল এবং দীর্ঘ এক প্রক্রিয়া হবে। কূটনৈতিক রাস্তাই হল সামনে এগিয়ে যাওয়ার জন্য সঠিক পথ যা উভয় পক্ষের জন্যই কল্যাণমূলক হবে বলে তার প্রশাসনের এই বিশ্বাস অব্যাহত আছে।