রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে অগ্নিকাণ্ডে ১৫ জনের মৃত্যু: ইউএনএইচসিআর

জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা জানিয়েছে যে, বাংলাদেশের রোহিঙ্গা মুসলিমদের জন্য নির্মিত একটি শিবিরে এক ব্যাপক অগ্নিকাণ্ডে ন্যূনতম ১৫ জন নিহত এবং ৫৬০ জনেরও বেশি আহত হয়েছেন। সংস্থাটি জানাচ্ছে, অনুমান করা হচ্ছে প্রায় ৪০০ ব্যক্তি নিখোঁজ রয়েছেন।

জাতিসংঘের শরণার্থী বিষয়ক হাইকমিশনারের কার্যালয় বা ইউএনএইচসিআর বাংলাদেশের দক্ষিণের কক্সবাজারের এই শিবিরে শুরু হওয়া অগ্নিকাণ্ডের একদিন পর মঙ্গলবার এ ঘোষণা দেয়।

সংস্থাটি আরও জানাচ্ছে, অনুমিত ১০ হাজার বা তারও বেশি আশ্রয়কেন্দ্র ধ্বংস হয়ে গেছে বা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। ফলে প্রায় ৪৫ হাজার শরণার্থী গৃহহারা হয়ে পড়েছেন। কি কারণে এই দুর্যোগ দেখা দিয়েছে তা এখনও অজানা রয়েছে।

এই শিবিরের সবচেয়ে বড় চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানটিও ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এই চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানটি আন্তর্জাতিক অভিবাসন সংস্থার মাধ্যমে পরিচালিত হচ্ছে।

বাংলাদেশের দক্ষিণের এইসব শিবিরে প্রায় ৮ লক্ষ ৭০ হাজার রোহিঙ্গা শরণার্থী বসবাস করছেন যারা প্রতিবেশী দেশ মিয়ানমার থেকে সেদেশের সামরিক বাহিনীর নির্মূল অভিযানের মাঝে পালিয়ে এসেছেন। তাদের আশ্রয়কেন্দ্রগুলো সাধারণ উপাদান যেমন বাঁশ ও প্লাস্টিকের শিট দিয়ে তৈরি করা হয়েছে।

ইউএনএইচসিআর আন্তর্জাতিক সহযোগিতার আহ্বান জানাচ্ছে।