ফুকুশিমা দাইইচি চুল্লিতে আরও বেশি পানি ঢোকানো হয়েছে

ফুকুশিমা দাইইচি পরমাণু বিদ্যুৎ কেন্দ্রের পরিচালনা কোম্পানি অকেজো পরমাণু চুল্লির ধারক ভেসেলের ভেতর পাম্পের মাধ্যমে আরও পানি প্রবেশ করিয়েছে। দৃশ্যত, মধ্য-ফেব্রুয়ারির একটি শক্তিশালী ভূমিকম্পের কারণে এটির অতিরিক্ত ক্ষতি হয়েছিল।

টোকিও বিদ্যুৎ শক্তি কোম্পানি বা টেপকো বলছে, সাম্প্রতিক এই ভূমিকম্পের পর থেকে ১ নম্বর চুল্লির ধারক ভেসেলের ভেতর শীতলীকরণ পানির স্তর হ্রাস পেয়ে চলেছে।

টেপকো বলছে, সোমবার রাত পর্যন্ত ভেসেলের অভ্যন্তরে পানির স্তর ৯০ সেন্টিমিটারে নেমে যায়। এর ভেতরে প্রবেশ করানো পানির পরিমাণ ছিল ঘণ্টায় ৩ থেকে ৪ কিউবিক মিটার কারণ পানির স্তর আরও কমে গেলে তা কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ অসম্ভব করে তুলতে পারে।

উল্লেখ্য, ১ নম্বর চুল্লিটি ২০১১ সালের মার্চে মহাভূমিকম্প এবং ৎসুনামির পর ঐ বিদ্যুৎ কেন্দ্রে জ্বালানি গলে যাওয়া তিনটি চুল্লির একটি। গলিত জ্বালানি এবং কাঠামোগত ধ্বংসাবশেষের এখনও পর্যন্ত সার্বক্ষণিক শীতলীকরণের দরকার হচ্ছে।

টেপকো বলছে, মধ্য-ফেব্রুয়ারির ভূমিকম্প খুব সম্ভবত ১০ বছর আগের বিপর্যয়ে ঘটা ক্ষতিকে আরও খারাপ করে তুলেছে, যার কারণে আরও বেশি পানি বেরিয়ে যাচ্ছে। কোম্পানিটি এও বলছে যে জ্বালানি ধ্বংসাবশেষ এখনও শীতল থাকায় এবং চুইয়ে বেরিয়ে পড়া পানি চুল্লি-দালানের ভেতরেই ধারণ করে রাখায় এক্ষেত্রে কোন নিরাপত্তা উদ্বেগ নেই।