অস্ত্রোপচার ছাড়া লিঙ্গ পরিবর্তনের অনুমোদন দিয়েছে জাপানের আদালত

জাপানের একটি উচ্চ আদালত অস্ত্রোপচার না করেই আইনগতভাবে লিঙ্গ পরিবর্তন করার জন্য তৃতীয় লিঙ্গের এক ব্যক্তির অনুরোধ অনুমোদন করেছে।

মামলার ঘনিষ্ঠ সূত্রগুলো জানিয়েছে যে লিঙ্গ পরিচয়জনিত সমস্যায় আক্রান্ত একজন ব্যক্তির জন্য বুধবার উচ্চ আদালত এই সিদ্ধান্ত দিয়েছে। মূলত, ঐ ব্যক্তি পুরুষ হিসেবে নথিভুক্ত থাকলেও তিনি একজন মহিলা হিসাবে জীবনযাপন করছেন।

প্রচলিত আইন অনুযায়ী যারা লিঙ্গ পরিবর্তন করতে ইচ্ছুক তাদের অস্ত্রোপচারের মধ্য দিয়ে যেতে হতো, যাতে করে তাদের প্রজনন সক্ষমতা না থাকে এবং যৌনাঙ্গ বিপরীত লিঙ্গের সাথে সাদৃশ্যপূর্ণ হয়।

সেই ব্যক্তির আবেদনের প্রেক্ষিতে, সুপ্রিম কোর্ট অক্টোবর মাসে রায় দেয় যে প্রজনন অঙ্গের অপসারণের জন্য অস্ত্রোপচারের প্রয়োজনীয়তা অসাংবিধানিক। কারণ, এটি ক্ষতিগ্রস্ত না হওয়ার অধিকারকে লঙ্ঘন করে।

আদালত অস্ত্রোপচারের বিষয়টি পুনর্বিচারের আদেশ দেয় এবং এরফলে মামলাটি উচ্চ আদালতে চলতে থাকে।

বুধবার রায় ঘোষণার সময় উচ্চ আদালত এরকম বলেছে বলে জানা যায় যে, অস্ত্রোপচার করানো এবং তার ফলে ক্ষতিগ্রস্থ না হওয়ার অধিকার ত্যাগ করা বা নিজের লিঙ্গ পরিচয়ের আইনি স্বীকৃতি ত্যাগ করা, এই দুইয়ের মধ্যে একটি পথ বেছে নিতে বাধ্য করার মাধ্যমে লিঙ্গ পরিবর্তন করতে ইচ্ছুক লোকজনের উপর অতিরিক্ত বিধিনিষেধ আরোপ করা হয়েছে।

আদালত রায়ে আরও বলেছে, এটি অনুধাবন করা যৌক্তিক যে লিঙ্গ পরিবর্তনের প্রয়োজনীয় শর্ত ততক্ষণ পর্যন্ত পূরণ হয়, যতক্ষণ পর্যন্ত একজন ব্যক্তি অন্যদের নিকট বিপরীত লিঙ্গের বলে মনে হয়। এমনকি যদি অস্ত্রোপচার নাও করা হয়।