খামেনেইয়ের চাপের মধ্যেই বিজয়ী ভাষণ দিয়েছেন ইরানের নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট

ইরানের নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মাসুদ পেজেশকিয়ান, শুক্রবার অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে জয়লাভের পর তার প্রথম বিজয়ী ভাষণ দিয়েছেন।

সংস্কারপন্থী একমাত্র প্রার্থী হিসাবে পেজেশকিয়ান ৫৩ শতাংশের বেশি ভোট পেয়ে কট্টর রক্ষণশীল সাঈদ জালিলিকে পরাজিত করেন, যিনি প্রায় ৪৪ শতাংশ ভোট পেয়েছেন।

নির্বাচনী প্রচারাভিযানের সময় পেজেশকিয়ান পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে আরও সংলাপের আহ্বান জানালেও, জালিলি পশ্চিমের মুখোমুখি দাঁড়াতে দ্বিধা না করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।

দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে ভোটারদের উপস্থিতি প্রথম ধাপের চেয়ে প্রায় ১০ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে প্রায় ৪৯.৮ শতাংশে পৌঁছায়৷

বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে অসন্তুষ্ট নাগরিকরা পেজেশকিয়ানকে সমর্থন দেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

গতকাল শনিবার প্রদত্ত বিজয়ী ভাষণে পেজেশকিয়ান বলেন যে, আরও উন্নত জীবনের জন্য লড়াই করে যাওয়া নাগরিকদের উদ্বেগ কমাতে ইরান একটি পরীক্ষার সম্মুখীন হয়েছে।

সংসদের সাবেক ডেপুটি স্পিকার ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন যে, এবারের নির্বাচনে তিনি জনগণকে মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দেননি।

তিনি, অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহার করা ও ইরানের পরমাণু উন্নয়ন কর্মসূচী নিয়ে ২০১৫ সালের চুক্তিটি পুনরুজ্জীবিত করার লক্ষ্যে পশ্চিমা দেশগুলোর সাথে সম্পর্কোন্নয়নের চেষ্টা চালাতে প্রস্তুত থাকার ইচ্ছা ব্যক্ত করেন।

রাজধানী তেহরানের মানুষ পরিবর্তনের আশা প্রকাশ করেছেন। ৪২ বছর বয়সী এক ব্যক্তি বলেন, তিনি চান যে নব নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট যত দ্রুত সম্ভব নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয়ার লক্ষ্যে কাজ শুরু করবেন।

৪২ বছর বয়সী একজন মহিলা বলেন, তিনি আশা করেন যে পেজেশকিয়ান সামাজিক পরিস্থিতি বিবেচনায় নিয়ে অন্যান্য দেশের সাথে সম্পর্ক গড়ে তুলবেন।

ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনেইয়ের প্রচারিত এক বিবৃতিতে, নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্টকে তার পূর্বসূরির ধারা অব্যাহত রেখে দেশের উন্নয়নের জন্য একটি উজ্জ্বল ভবিষ্যতের পরিকল্পনা করার পরামর্শ দেয়া হয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়।

পেজেশকিয়ান, চলতি বছর মে মাসে এক হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত কট্টরপন্থী সাবেক প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসির স্থলাভিষিক্ত হবেন।

রক্ষণশীলদের নিয়ন্ত্রিত সংসদে নব-নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট পররাষ্ট্র নীতিতে বড় ধরণের কোনো পরিবর্তন আনতে সক্ষম হন কিনা, সেদিকে এখন সবার দৃষ্টি নিবদ্ধ রয়েছে।