ইউক্রেনে স্থলমাইন অপসারণে সহযোগিতা করতে সম্মত হয়েছে জাপান ও কম্বোডিয়া

জাপান ও কম্বোডিয়া, ইউক্রেন ও অন্যান্য দেশে স্থলমাইন অপসারণে একসঙ্গে কাজ করতে সম্মত হয়েছে।

জাপানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী কামিকাওয়া ইয়োকো শনিবার দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার দেশটি সফরের সময় কম্বোডিয়ার উপ-প্রধানমন্ত্রী ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী সোক চেন্দা সোফিয়ার সঙ্গে বৈঠকে এই মতৈক্য প্রতিষ্ঠিত হয়।

মন্ত্রীরা, কম্বোডিয়ায় বিস্ফোরক অস্ত্র সরিয়ে নেয়ায় জাপানের বহু বছরের অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে ইউক্রেন'সহ অন্যান্য তৃতীয় দেশে স্থলমাইন অপসারণে দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতার একটি উদ্যোগ ঘোষণা করেন।

সুনির্দিষ্ট পদক্ষেপগুলোর মধ্যে, কম্বোডিয়ায় স্থলমাইন বিরোধী পদক্ষেপের জন্য আন্তর্জাতিক একটি দল গঠন অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা ও অন্যান্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে, বেসরকারি কোম্পানিগুলোর সঙ্গে যৌথভাবে স্থলমাইন অপসারণ যন্ত্রপাতি উন্নয়ন করা হবে।

এক যৌথ সংবাদ সম্মেলনে কামিকাওয়া বলেন যে, সারা বিশ্বে এখনও লোকজন স্থলমাইনের শিকার হচ্ছে।

তিনি বলেন যে, জাপান বহু বছর ধরে স্থলমাইন থেকে মুক্তি পেতে কম্বোডিয়ার প্রচেষ্টায় সহায়তা করে আসছে। তিনি বলেন, দুই দেশ তাদের প্রচেষ্টার মাধ্যমে অর্জিত কৌশল ও জ্ঞানের ভিত্তিতে একসাথে কাজ করতে পারে।

দুই মন্ত্রী, পানি ও পয়ঃনিষ্কাশন ব্যবস্থা, টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো, ৫জি মোবাইল নেটওয়ার্ক'সহ কম্বোডিয়ায় সাইবার নিরাপত্তা খাতে পারস্পরিক সহযোগিতার বিষয়ে সম্মত হন।

জাপান, সেই অঞ্চলের একটি সরবরাহ ঘাঁটি হিসাবে কম্বোডিয়ার একটি বন্দরের উন্নয়নে অবদান রাখার পরিকল্পনা করেছে।