পুতিনের সঙ্গে হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ওরবানের সাক্ষাৎ

হাঙ্গেরির প্রধানমন্ত্রী ভিক্টর ওরবান, ইউক্রেনে যুদ্ধবিরতি অর্জন এগিয়ে নেয়ার অংশ হিসেবে মস্কোতে রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সাথে সাক্ষাৎ করেছেন। ওরবান কিইভ সফর করার মাত্র কয়েকদিন পর গতকাল শুক্রবার বৈঠকটি অনুষ্ঠিত হয়। হাঙ্গেরি ইউরোপীয় ইউনিয়নের পর্যায়ক্রমিক সভাপতির দায়িত্ব পালন করছে এবং তার এই সফর বিভিন্ন সমালোচনার জন্ম দিচ্ছে।

পুতিনের ঘনিষ্ঠ মিত্র হিসেবে ওরবান ব্যাপকভাবে পরিচিত। দুই নেতা ইউক্রেন যুদ্ধ'সহ বিভিন্ন বৈশ্বিক বিষয় নিয়ে আলোচনার জন্য মিলিত হন।

পুতিন বলেন যে, "রাশিয়া সংঘাতের সম্পূর্ণ ও চূড়ান্ত সমাপ্তির পক্ষে রয়েছে।" তবে তিনি এও বলেন যে, রাশিয়ার একীভূত করে নেয়া চারটি অঞ্চল থেকে ইউক্রেনীয় সৈন্য প্রত্যাহার করা হলেই কেবল যুদ্ধ বন্ধ হবে।

ওরবান বলেন যে, দুই পক্ষের মধ্যে ব্যাপক মতভেদ থাকলেও, শান্তিপূর্ণ সমাধান আনতে তার পক্ষে যা সম্ভব তিনি তা করবেন। তিনি বলেন যে, "যুদ্ধ শেষ করার জন্য অনেক পদক্ষেপের প্রয়োজন রয়েছে, তবে, আমরা পুনরায় সংলাপ অনুষ্ঠানের জন্য গুরুত্বপূর্ণ প্রথম পদক্ষেপ নিতে পেরেছি এবং এই কাজ আমি চালিয়ে যাব।"

কিইভের নেতারা, এই সফরের জন্য ওরবানের সমালোচনা করে তাদের দাবির পুনরাবৃত্তি করে বলেন যে "ইউক্রেন ছাড়া ইউক্রেনের বিষয়ে কোন চুক্তি হতে পারে না"।

ইউরোপের বিভিন্ন কর্তৃপক্ষও এই সফরের নিন্দা জানিয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম এক্স-এ প্রেরিত এক বার্তায় ইউরোপীয় কাউন্সিলের সভাপতি চার্লস মিশেল বলেন যে, "ইইউর পর্যায়ক্রমিক সভাপতির ইউরোপীয় ইউনিয়নের পক্ষে রাশিয়ার সাথে আলোচনা করার কোনো অধিকার নেই।"