গাজায় হামলা চালানোর পাশাপাশি লেবাননের হিজবুল্লাহর সঙ্গে ইসরায়েলের গুলি বিনিময়

ইসরায়েলি বাহিনী, গাজায় ভয়াবহ হামলা চালিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি লেবাননের হিজবুল্লাহ যোদ্ধাদের সঙ্গে গুলি বিনিময় করায় মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা বেড়ে চলেছে।

সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে, ইরান সমর্থিত শিয়া জঙ্গি গোষ্ঠী হিজবুল্লাহ ও ইসরায়েলের মধ্যকার সংঘর্ষ তীব্র আকার ধারণ করেছে।

ইসরায়েলের প্রতিরক্ষা মন্ত্রী ইয়োভ গ্যালান্ট শুক্রবার বলেন যে, "আমরা যুদ্ধ চাইছি না, তবে আমরা একটি যুদ্ধের জন্য প্রস্তুত রয়েছি।"

জাতিসংঘে ইরানের স্থায়ী মিশন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে জানিয়েছে যে, ইসরায়েল যদি "পূর্ণ মাত্রার সামরিক আগ্রাসন শুরু করে, তাহলে একটি ধ্বংসাত্মক যুদ্ধ শুরু হবে। সবগুলো প্রতিরোধ ফ্রন্টের পূর্ণাঙ্গ অংশগ্রহণ'সহ সমস্ত বিকল্প টেবিলে রয়েছে।"

গতকাল শনিবার ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানিয়েছে যে, তারা লেবানন থেকে ট্যাংক বিরোধী গোলা আসা সনাক্ত করেছে এবং এই গোলাবর্ষণের উৎসগুলোতে আঘাত হেনেছে।

এদিকে ইসরায়েলি বাহিনী, দক্ষিণে রাফাহ'সহ আবার উত্তর গাজায় অভিযান চালায়, যেখানে তারা নিয়ন্ত্রণ নিয়েছে বলে দাবি করেছিল। তাদের ভাষ্যানুযায়ী, তারা একটি বড় সংখ্যক সন্ত্রাসীদের নির্মূল করেছে এবং একটি বিদ্যালয় চত্বরের অভ্যন্তরে একটি অস্ত্র গুদামের সন্ধান পেয়েছে।

স্থানীয় গণমাধ্যম জানিয়েছে যে, ইসরায়েলি যুদ্ধবিমান উত্তর গাজা শহরের একটি বাড়িতে বোমা বর্ষণ করেছে, এতে বেশ কয়েকজন বেসামরিক লোক নিহত হওয়ার পাশাপাশি আরও অনেকে আহত হয়েছেন।