ডলারের বিপরীতে ইয়েনের মূল্য ১৬০ এর উপরিভাগের দুর্বল অবস্থায়

বুধবার নিউইয়র্কে দিনের এক পর্যায়ে ডলারের বিপরীতে ইয়েনের মূল্যে পতন ঘটে ১৬০ এর উপরিভাগের দিকে নেমে যায়, যা হল গত ৩৭ বছরের বেশি সময়ের মধ্যে সর্বনিম্ন।

ইয়েনের মূল্য এক পর্যায়ে ইউরোর বিপরীতেও ১৭১এর ঊর্ধ্ব মাত্রায় নেমে আসে, যা হল ১৯৯৯ সালে ইউরোপীয় মুদ্রা চালু হওয়ার পর থেকে সর্বনিম্ন।

যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা মঙ্গলবার আগাম হার কমানোর বিষয়ে ব্যাংক সতর্ক অবস্থান গ্রহণ করছে বলে ব্যক্ত করার পর সুদের হার কমাতে কেন্দ্রীয় ব্যাংক কোন রকম তাড়াহুড়ো করছে না, এমন একটি দৃষ্টিভঙ্গি বুধবার বিনিয়োগকারীদের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে।

এর প্রতিক্রিয়া হিসাবে বিনিয়োগকারীরা লন্ডন বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় বাজারে জাপানি মুদ্রা বিক্রি করে দেয়, যার ফলে এপ্রিলের শেষের দিকে ইয়েনের যে মূল্য ছিল সেই ১৬০.২৪ এর নীচে তা নেমে যায়, যা হল ১৯৮৬ সালের ডিসেম্বর মাসের পর থেকে সর্বনিম্ন।

জাপানের মুদ্রা বিষয়ক প্রধান, আন্তর্জাতিক বিষয়াবলী সংক্রান্ত অর্থ উপমন্ত্রী কান্দা মাসাতো বুধবার রাতে সাংবাদিকদের বলেছেন যে অতিরিক্ত উঠানামার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

তবে নিউ ইয়র্কের বৈদেশিক মুদ্রা বিনিময় বাজারে ইয়েনের বিক্রি অব্যাহত আছে। দিনের এক সময়ে ইয়েনের মূল্য হ্রাস পেয়ে ১৬০ এর উপরের দিকের মাত্রায় নেমে যায়।

বাজার সূত্রগুলো উল্লেখ করেছে যে, ডলারের বিপরীতে ১৬০.২৪ এর মাত্রা ইয়েন অতিক্রম করেছে এবং অনেক বিনিয়োগকারী উপমন্ত্রীর মন্তব্য থেকে সরকার যে খুব জোরালো কোন পদক্ষেপ নেবে তা মনে করছে না। তারা জানায় যে ফটকাবাজদের ইয়েন বিক্রি ত্বরান্বিত করতে সেটা প্ররোচিত করেছে।