রপ্তানি বৃদ্ধি পেলেও মে মাসে বাণিজ্য ঘাটতির হিসাব দিয়েছে জাপান

জাপান মে মাসে টানা দ্বিতীয় মাস ধরে বাণিজ্য ঘাটতির হিসাব দিয়েছে, এমনকি একই মাসে রপ্তানি ৪৫ বছরের মধ্যে সর্বোচ্চে পৌঁছে যাওয়া সত্ত্বেও এই হিসাব প্রকাশ করা হয়।

তেল-সম্পর্কিত পণ্যের আমদানি বৃদ্ধি এবং দুর্বল ইয়েনকে মূলত এই ঘাটতির জন্য দায়ী করা হয়।

অর্থ মন্ত্রণালয় জানিয়েছে যে মে মাসের ঘাটতির পরিমাণ ছিল ১.২ ট্রিলিয়ন ইয়েন বা প্রায় ৭.৭ বিলিয়ন ডলার।

এক বছর আগের তুলনায় রপ্তানি ১৩.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৫২.৪ বিলিয়ন ডলারে দাঁড়ায়। প্রথমবারের মত তুলনামূলক উপাত্ত পাওয়া যাওয়ার সময়, ১৯৭৯ সালের মে মাসের পর থেকে এটা হচ্ছে সর্বোচ্চ।

যুক্তরাষ্ট্রে মোটরগাড়ির রপ্তানি বৃদ্ধি পেয়েছে, অন্যদিকে চীনে সেমিকন্ডাক্টর উৎপাদন যন্ত্রপাতির চালানও বেড়েছে।

আমদানি ৯.৫ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়ে ৬০ বিলিয়ন ডলারের বেশিতে দাঁড়ায়।

কৃত্রিম রাবার তৈরিতে ব্যবহৃত নাফতার মত পেট্রোলিয়াম সামগ্রীর নেতৃত্বে এটা পরিচালিত হয়েছে। ইয়েনের দুর্বল অবস্থা তেল-ভিত্তিক আমদানির খরচ বাড়িয়ে দিয়েছে, যে মূল্য সাধারণত ডলারের হিসাবে নির্ধারণ করা হয়।