গাজা জুড়ে ইসরায়েলের হামলা, ত্রাণ পৌঁছানোর জন্য বিরতির ঘোষণা

গাজা ভূখণ্ডে আরও মানবিক সহায়তা প্রেরণের অনুমতি দেওয়ার জন্য দক্ষিণের এক অঞ্চলে তাদের সামরিক কার্যকলাপ বিরতি রাখার ঘোষণার পাশাপাশি ইসরায়েল এই ভূখণ্ড জুড়ে আক্রমণ অব্যাহত রেখেছে।

রবিবার ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী জানায় যে এই বিরতিটি কেরাম শালোম সীমান্ত ক্রসিং থেকে একটি মূল রাস্তা এবং আরও উত্তর দিকে যাওয়ার পথের জন্য প্রযোজ্য হবে। এই রুটটি দক্ষিণ গাজার খান ইউনিসের কাছে মানবিক সাহায্য সরবরাহের জন্য ব্যবহার করা যেতে পারে।

সামরিক বাহিনী জানায়, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রতিদিন সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৭টা পর্যন্ত যুদ্ধবিরতি কার্যকর থাকবে।

তবে সামরিক বাহিনী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পোস্টে জানায় যে তারা রাফাহ'সহ দক্ষিণ গাজায় অভিযান চালিয়ে যাবে। হিব্রু ভাষায় লিখিত পোস্টটি দৃশ্যত ইসরায়েলিদের এটি দেখানোর জন্য ছিল যে সামরিক বাহিনী তার কঠোর অবস্থান বজায় রাখবে।

রবিবারও গাজা জুড়ে ইসরায়েলি সেনাবাহিনী হামলা অব্যাহত রাখে। একটি স্থানীয় সংবাদমাধ্যম জানায় যে মধ্য গাজার একটি শরণার্থী শিবিরের দুটি বাড়ি লক্ষ্য করে বোমা হামলায় একটি শিশু'সহ ছয়জন নিহত এবং কয়েক ডজন আহত হয়েছেন।

এদিকে, ছয় সপ্তাহের যুদ্ধবিরতি এবং গাজায় আটক জিম্মিদের মুক্তির জন্য একটি তিন-পর্যায়ের পরিকল্পনা নিয়ে ইসরায়েল ও হামাসের মধ্যে আলোচনা স্থগিত রয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেন গত ৩১শে মে এই পরিকল্পনার কথা ঘোষণা করেছিলেন।