সংশোধিত অভিবাসন নিয়ন্ত্রণ আইনের অধীনে শরণার্থী মর্যাদার আবেদন সীমিত করেছে জাপান

জাপান আজ সোমবার থেকে সংশোধিত অভিবাসন নিয়ন্ত্রণ ও শরণার্থী স্বীকৃতি আইন কার্যকর করতে শুরু করেছে। এর অধীনে, তিন বা ততোধিক বার শরণার্থী মর্যাদার জন্য আবেদন করা বিদেশি নাগরিকদের যুক্তিসঙ্গত কারণ না থাকলে দেশে ফেরত পাঠানো হবে।

কর্তৃপক্ষের ভাষ্যানুযায়ী, কিছু বিদেশি ব্যক্তি তাদের শরণার্থী মর্যাদার আবেদন প্রক্রিয়াধীন থাকাকালীন একটি ব্যবস্থার অপব্যবহার করে দেশে ফেরত পাঠানো এড়ানোর চেষ্টা করেন। উল্লেখ্য, ওই ব্যবস্থার আওতায়, আবেদনের প্রক্রিয়া চলাকালে সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে দেশে ফেরত পাঠানো স্থগিত করা হয়।

সংশোধিত আইনটিতে, দেশে ফেরত পাঠানোর মুখোমুখি হওয়া ব্যক্তিদের আটক স্থাপনার পরিবর্তে অনুমোদিত ব্যক্তিদের তত্ত্বাবধানে বসবাসের অনুমতি দেয়া হয়।

অভিবাসন পরিষেবা এজেন্সির ভাষ্যানুযায়ী, জাপান ছেড়ে নিজ দেশে ফিরে যেতে অস্বীকার করা বারংবার আশ্রয় প্রার্থনাকারীদের ক্ষেত্রে আটককাল এবং যাচাই-বাছাইয়ের প্রক্রিয়া দীর্ঘায়িত হওয়ার বিষয়টি প্রত্যক্ষ করেছে তারা।

সংস্থাটি এও জানিয়েছে যে এই পরিস্থিতি যাদের সত্যিই সুরক্ষার প্রয়োজন তাদের দ্রুত সুরক্ষা দেয়াকে কঠিন করে তোলে।

তবে, আশ্রয়প্রার্থীদের যাচাই-বাচাইয়ে পর্যাপ্ত স্বচ্ছতা এবং ন্যায্যতা নিশ্চিত করতে ব্যর্থ হওয়ার মতো সংশোধিত আইনের কিছু ত্রুটির বিষয় তুলে ধরছে বিদেশিদের সমর্থনকারী গোষ্ঠীগুলো।

তাদের ভাষ্যানুযায়ী, এই আইন আশ্রয়প্রার্থীদের এমন দেশে ফেরত পাঠানোর অনুমোদন দিতে পারে, যেখানে তাদের নির্যাতিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।