পাপুয়া নিউ গিনির ভূমিধসে উদ্ধার অভিযান শেষ হয়েছে

ব্যাপক এক ভূমিধসের দুই সপ্তাহ পর এখনো পর্যন্ত নিখোঁজ থাকা বহু লোকের উদ্ধার তৎপরতা বন্ধ করে দিয়েছে পাপুয়া নিউ গিনির কর্তৃপক্ষ। উল্লেখ্য, দেশটির উত্তরাঞ্চলের একটি গ্রাম গভীর ধ্বংসস্তূপের নিচে চাপা পড়েছে।

প্রাদেশিক সরকার বলছে যে উদ্ধার অভিযান এবং মৃতদেহ সন্ধানের কাজ বৃহস্পতিবার শেষ হয়েছে। সেখানে আরও ভূমিধসের পাশাপাশি পচন ধরা মৃতদেহ থেকে রোগ ছড়িয়ে পড়ার ঝুঁকি রয়েছে। এলাকাটিকে "গণ সমাধিস্থল" হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে।

গত ২৪শে মে রাজধানী পোর্ট মোরসবির প্রায় ৬শ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমের পার্বত্য প্রদেশ এনগায় এই বিপর্যয় ঘটে।

এপর্যন্ত দশ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করা হলেও ভূমিধসের ব্যাপক মাত্রার কারণে প্রকৃত সংখ্যা জানা কঠিন হয়ে পড়েছে।

সরকারের ভাষ্যানুযায়ী, অন্তত ২ হাজার মানুষ ধ্বংসস্তুপ ও কাদার নিচে চাপা পড়েছেন, যা জাতিসংঘের একটি সংস্থার অনুমিত প্রায় ৬৭০ জনের চেয়ে অনেক বেশি।

ঝুঁকিপূর্ণ পরিস্থিতি এবং মূল মহাসড়ক'সহ অন্যান্য সড়ক বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়ার কারণে উদ্ধারকাজ ব্যাহত হচ্ছে।

একটি সাহায্য সংস্থার ভাষ্যমতে, কিছু লোক শুধুমাত্র লাঠি ব্যবহার করেই পরিবারের সদস্য'সহ অন্যান্যদের জন্য মরিয়া হয়ে অনুসন্ধান অব্যাহত রেখেছেন। প্রাদেশিক সরকার ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার মধ্যে অবস্থান করা এক হাজারেরও বেশি বাসিন্দাকে নিরাপদ স্থানে সরে যাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছে।