২০২৩ সালে জাপানের মোট প্রজনন হার রেকর্ড পরিমাণ কম

জাপানের সরকারি পরিসংখ্যান অনুযায়ী দেশটির মোট প্রজনন হার ১৯৪৭ সালে রেকর্ড রাখা শুরু করার পর থেকে গত বছর সর্বনিম্ন পর্যায়ে নেমে এসেছে। পরিসংখ্যান মতে, জীবদ্দশায় একজন মহিলার ধারণ করা প্রত্যাশিত সন্তান সংখ্যা ১.২০-এ নেমে এসেছে।

স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বুধবার জনসংখ্যা পরিসংখ্যান ২০২৩ প্রকাশ করেছে।

মোট প্রজনন হার গত বছর তার পূর্বের বছরের চূড়ান্ত সংখ্যা থেকে ০.০৬ পয়েন্ট কমেছে। এটি টানা ৮ বছর ধরে ধারাবাহিক পতনের হিসাব তুলে ধরেছে।

দেশের সকল জেলাতেই মোট প্রজননের এই হার কমেছে। টোকিওতে এই হার ছিল সর্বনিম্ন ০.৯৯, অন্যদিকে ওকিনাওয়ায় এই হার ছিল সর্বোচ্চ ১.৬০।

গত বছর জন্মগ্রহণকারী মোট জাপানি শিশুর সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ৭,২৭,২৭৭ জন। এটি এক বছর আগের তুলনায় ৪৩,৪৮২ জন কম এবং ১৮৯৯ সালে পরিসংখ্যানগত রেকর্ড শুরু হওয়ার পর থেকে সর্বনিম্ন।

বিবাহের সংখ্যা ছিল ৪,৭৪,৭১৭টি। এই সংখ্যা পূর্ববর্তী বছরে তুলনায় ৩০,১২৩টি কম, যা যুদ্ধ পরবর্তী জাপানে সর্বনিম্ন।

মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা বলছেন, ক্রমহ্রাসমান জন্মহার একটি সংকটজনক অবস্থায় রয়েছে। কর্মকর্তারা ২০৩০-এর দশকের পূর্ব পর্যন্ত সময়কালকে নির্দেশ করছেন, যখন তরুণ জনসংখ্যা দ্রুত হ্রাস পাবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। কর্মকর্তাদের মতে, এই সময়কালের মধ্যেই জন্মহার হ্রাসের প্রবণতা বিপরীতমুখী করার শেষ সুযোগ নিহিত রয়েছে।