ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে নেতৃস্থানীয় ভূমিকা পালন করবে জাপান: প্রতিরক্ষামন্ত্রী

জাপানের প্রতিরক্ষামন্ত্রী একটি এশীয় নিরাপত্তা সম্মেলনে বলেছেন যে তার দেশ ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে "আইনের শাসনের উপর ভিত্তি করে একটি মুক্ত ও অবাধ আন্তর্জাতিক ব্যবস্থা বজায় রাখা এবং শক্তিশালী করার প্রচেষ্টার নেতৃত্ব দিতে বদ্ধপরিকর"।

গতকাল শনিবার সিঙ্গাপুরে শাংরি-লা সংলাপ নামে পরিচিত এশিয়া নিরাপত্তা সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন কিহারা মিনোরু।

তিনি বলেন যে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় "পূর্ব ও দক্ষিণ চীন সাগরে বলপ্রয়োগ বা জবরদস্তির মাধ্যমে স্থিতাবস্থার একতরফা পরিবর্তন এবং এই ধরনের প্রচেষ্টা" প্রত্যক্ষ করছে।

কিহারা দৃশ্যত সেই অঞ্চলগুলোতে চীনের ক্রমবর্ধমান সামুদ্রিক তৎপরতার কথা উল্লেখ করছিলেন।

তিনি এও বলেন যে, "তাইওয়ান প্রণালী জুড়ে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখাও গুরুত্বপূর্ণ।"
কিহারার ভাষ্যানুযায়ী, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অভিন্ন স্বার্থেই ভারত-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলে শান্তি ও স্থিতিশীলতা বজায় রাখা প্রয়োজন।

তিনি বলেন, জাপান "এই লক্ষ্যকে ভাগাভাগি করে নেয়া একাধিক দেশের সাথে কাজ করবে।"

কিহারা তথাকথিত পাল্টা-হামলা চালানোর ক্ষমতা অর্জনের সিদ্ধান্তের বিষয়েও কথা বলেন এবং এটি ব্যাখ্যা করেন যে "জাপানের প্রতিরক্ষা ক্ষমতার শক্তিশালীকরণ এবং নিজের মিত্র ও সমমনা দেশগুলো'সহ অংশীদারদের সাথে বর্ধিত সহযোগিতা এই অঞ্চলে উত্তেজনা বাড়ানোর জন্য নয়।"

তিনি এও বলেন যে, "একটি প্রত্যাশিত নিরাপত্তা পরিবেশ গঠনের লক্ষ্যে বলপ্রয়োগ করে স্থিতাবস্থায় একতরফা পরিবর্তন আনা রোধ করতে চায় জাপান।"