তেহরানে দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ও অন্যান্যদের জানাজা

রবিবার হেলিকপ্টার দুর্ঘটনায় নিহত ইরানের প্রয়াত প্রেসিডেন্ট ইব্রাহিম রাইসিসহ অন্যান্যদের জন্য একটি বড় আকারের জানাজার আয়োজন দেশটির রাজধানী তেহরানে বুধবার দুপুর পর্যন্ত চলছিল।

ইরানের উত্তরপশ্চিমাঞ্চলীয় প্রদেশ পূর্ব আজারবাইজানে হেলিকপ্টারটি বিধ্বস্ত হয়েছিল। এতে রাইসি এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী হোসেইন আমির আবদুল্লাহিয়ানসহ বিমানে থাকা আটজনই নিহত হয়েছেন।

তেহরানে বুধবার সকালে জানাজার অনুষ্ঠান শুরু হয়। এসময়ে মৃতদের প্রতি শোক জানাতে প্রচুর মানুষের সমাগম হয়।

সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলী খামেনি শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ে মরদেহের সামনে জানাযায় অংশগ্রহণ করেন।

আশপাশের রাস্তাগুলো কালো পোশাক পরিধান করা শোকার্তদের দিয়ে পরিপূর্ণ ছিল। তারা রাইসির ছবি ও প্রতিকৃতি বহন করছিল এবং বার্তা দিচ্ছিল, "আমরা তোমাকে ভুলব না।"

গাজা ভূখন্ডে ইসরায়েলি বাহিনীর বিরুদ্ধে লড়াই করা ইসলামিক গ্রুপ হামাসের একজন শীর্ষ নেতা ইসমাইল হানিয়াহসহ ইরানের অভিজাত ইসলামিক বিপ্লবী রক্ষী বাহিনীর শীর্ষ কর্মকর্তারা এই জানাযায় অংশ নিয়েছেন।

ইরানের রাষ্ট্র পরিচালিত টিভি জানিয়েছে যে হানিয়াহ রাইসির জন্য প্রশংসা করেছেন এবং বলেছেন যে, রাইসি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন, ইরান ফিলিস্তিনি জনগণের প্রতিরোধের প্রতি সমর্থন অব্যাহত রাখবে যাতে ফিলিস্তিনি জনগণের লক্ষ্যসমূহ অর্জিত হয়।