জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা পর্যবেক্ষকরা সন্দেহ করছেন যে সাইবার হামলা চালানোর মধ্যে দিয়ে উত্তর কোরিয়া ৩.৬ বিলিয়ন ডলার চুরি করেছে

জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞা পর্যবেক্ষকরা সন্দেহ করছেন ২০১৭ সাল থেকে ২০২৪ সালের এপ্রিল মাস পর্যন্ত সময়ে উত্তর কোরিয়া ৩.৬ বিলিয়ন ডলার মূল্যের ক্রিপ্টোকারেন্সি চুরির লক্ষ্যে চালানো ৯৭টি সাইবার হামলার সাথে জড়িত ছিল।

পর্যবেক্ষকরা উত্তর কোরিয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা কার্যকর তদারক করা নিরাপত্তা পরিষদের বিশেষজ্ঞ প্যানেলের সদস্য ছিলেন। ম্যান্ডেটের পুনঃ নবায়নে রাশিয়া ভেটো দেয়ার পর এপ্রিল মাসের শেষে প্যানেলটি ভেঙে দেওয়া হয়।

জাতিসংঘের কূটনৈতিক সূত্রসমূহ বলছে, কিছু পর্যবেক্ষক শুক্রবার নিরাপত্তা পরিষদের উত্তর কোরিয়া নিষেধাজ্ঞা কমিটির কাছে তাদের অসমাপ্ত কাজ জমা দিয়েছেন।

নিজেদের প্রতিবেদনে পর্যবেক্ষকরা অভিযোগ করেছেন যে উত্তর কোরিয়া একটি মুদ্রা বিনিময় প্রতিষ্ঠান থেকে ১৪৭.৫ মিলিয়ন ডলার মূল্যের ক্রিপ্টোকারেন্সি চুরি করেছে এবং একটি ক্রিপ্টো মিক্সার পরিষেবা ব্যবহার করে মার্চ মাসে সেই অর্থ অবৈধভাবে পাচার করেছে।

একটি মিক্সার পরিষেবা ব্যবস্থা তহবিলের উৎস ও মালিকানা আড়াল করে রাখতে অনেক ব্যবহারকারীর ক্রিপ্টোকারেন্সি মিশিয়ে নেয়ার কাজ করে।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে চুরি হওয়া অর্থ উত্তর কোরিয়ার পারমাণবিক ও ক্ষেপণাস্ত্র উন্নয়ন কর্মসূচির তহবিল যোগানোয় ব্যবহার করা হচ্ছে।

বিশেষজ্ঞ প্যানেল ভেঙে দেওয়া উত্তর কোরিয়ার নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘন পর্যবেক্ষণ করায় জাতিসংঘের সামর্থ্য দুর্বল করে দেবে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।