মিয়ানমারের গণতন্ত্রপন্থী বিভিন্ন দল টোকিওতে সাহায্যের জন্য আহ্বান জানিয়েছে

মিয়ানমারের সংখ্যালঘু কয়েকটি নৃ-গোষ্ঠী ও গণতন্ত্রপন্থী বিভিন্ন দলের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা টোকিও সফর করেছেন। দেশের সামরিক জান্তার সাথে তাদের চালিয়ে যাওয়া যুদ্ধের অভিজ্ঞতা তারা ভাগাভাগি করে নেন এবং জাপানের প্রতি সাহায্যের আহ্বান জানান।

তিনটি সংখ্যালঘু নৃ-গোষ্ঠীর সশস্ত্র বাহিনীর প্রতিনিধিরা এবং জাতীয় ঐক্যের সরকারের একজন মন্ত্রী বুধবার একটি সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেন।

ঐক্যের সরকারের শিক্ষা ও স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাও ওয়াই সোয়ে বলেছেন, মিয়ানমারের ৬৫ শতাংশ ভূমির উপর নিয়ন্ত্রণ তারা নিশ্চিত করেছেন। ২০২১ সালের অভ্যুত্থানের পর জান্তার বিরুদ্ধে লড়াই শুরু হয়।

মন্ত্রী বলেছেন যে তার বাহিনী যত বেশি তাদের শক্তি বৃদ্ধি করছে, সামরিক বাহিনী ততই নিষ্ঠুর হয়ে উঠে বিমান হামলা চালিয়ে অনেক লোকজনকে হত্যা করছে।

তিনি আরও বলেন, সামরিক বাহিনীকে সহযোগিতা না করলে মানুষ চিকিৎসা ও ত্রাণ সামগ্রী পেতে পারে না। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের অনেক সরবরাহ সামরিক বাহিনীর মাধ্যমে প্রদান করা হয়। সাহায্য যাদের প্রয়োজন তাদের কাছে তা সরাসরি পৌঁছে দেয়ার উপায় খুঁজে দেখার আহ্বান জাপান সরকারের প্রতি তিনি জানিয়েছেন।