হিরোশিমায় আণবিক বোমায় আক্রান্তদের তালিকা বাতাসে শুকিয়ে নেয়ার অনুষ্ঠান সজীব সম্প্রচার

১৯৪৫ সালের আণবিক বোমা হামলায় নিহতদের নাম লিপিবদ্ধ করা বইগুলো বাতাসে শুকিয়ে নেয়ার বার্ষিক অনুষ্ঠান হিরোশিমা শহর প্রথমবারের মতো লাইভ স্ট্রিম বা সজীব সম্প্রচার করেছে।

প্রতি বছর শহরের পিস মেমোরিয়াল বা শান্তি স্মারক পার্ক থেকে এই কাজটি করা হয় যাতে আর্দ্রতাজনিত কারণে নথি বা তালিকাসমূহের ক্ষতি না হয়। উল্লেখ্য এই নথি স্মৃতিস্তম্ভে সংরক্ষণ করা রয়েছে।

এই নথিতে ১২৬টি বই রয়েছে যাতে ৩,৩৯,২২৭ জনের নাম এবং মৃত্যুর তারিখ লিপিবদ্ধ করা হয়েছে। এদের সকলেই বোমার সংস্পর্শে এসেছিলেন এবং গত বছরের ৫ই আগস্টের মধ্যে মৃত্যুবরণ করেছেন।

বুধবার, সকাল ৮টা ১৫ মিনিটে, ঠিক যে সময়টিতে আণবিক বোমা ফেলা হয়েছিল, সেই ক্ষণে এক নীরব প্রার্থনার পর, প্রায় ২০ জন কর্মী একটি করে বই সুন্দরভাবে সাদা কাপড়ের একটি চাদরে বিছিয়ে দেন।

কর্মকর্তারা বইয়ের প্রতিটি পৃষ্ঠার অবস্থা পর্যবেক্ষণ করেন এবং বইগুলোর ক্ষতি হ্রাসে বাতাসে শুকাতে দিয়েছেন।

হিরোশিমা শহর কর্তৃপক্ষ প্রাথমিক এবং নিম্ন মাধ্যমিক স্কুলগুলোকে তাদের শিক্ষার্থীদের শান্তির গুরুত্ব সম্পর্কে অবহিত করার উপায় হিসাবে বইগুলোকে শুকানোর প্রক্রিয়াটি দেখতে বলেছে৷

তবে অল্প কয়েকটি স্কুল এই কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করায়, শহরটি প্রথমবারের মতো কাজটিকে লাইভ স্ট্রিম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। এই কাজে তিনটি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে এবং ফুটেজগুলো অনলাইনে পোস্ট করার আগে সম্পাদনা করা হবে।