রাফাহ থেকে আরও বেশি লোকজনকে সরে যাওয়ার ইসরায়েলি নির্দেশের সমালোচনা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের

দক্ষিণ গাজা শহরে তাদের আক্রমণ সম্প্রসারণের প্রস্তুতি নেয়ার মাঝে রাফাহ শহর থেকে সরে যেতে নতুন আদেশ জারি করেছে ইসরায়েলি বাহিনী। এই পদক্ষেপের তীব্র সমালোচনা করেছে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীগুলো।

ইসরায়েলি সামরিক বাহিনী গতকাল শনিবার মধ্য রাফাহ ও অন্যান্য এলাকার লোকজনকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়। তারা এর আগে পূর্ব রাফাহ শহরের বেসামরিক নাগরিকদের শহর ছেড়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে একটি নির্দেশনা জারি করেছিল, যেখানে এক মিলিয়নেরও বেশি মানুষ আশ্রয় নিয়েছে।

সামরিক বাহিনীর ভাষ্যমতে, এ পর্যন্ত প্রায় তিন লাখ মানুষ সরে গেছে।

জাতিসংঘের ফিলিস্তিনি শরণার্থী বিষয়ক সংস্থার প্রধান, সর্বশেষ এই পদক্ষেপ নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেছেন।

আনরোয়া'র কমিশনার-জেনারেল ফিলিপ লাজারিনি, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের একটি পোস্টে লিখেছেন যে, যুদ্ধ শুরু হওয়ার পর থেকে গাজা ভূখণ্ডের বাসিন্দারা মরিয়া হয়ে নিরাপদ আশ্রয়ের দিকে ছুটলেও তারা কখনই তা খুঁজে পাননি। তিনি আরও বলেন, গাজায় কোনো নিরাপদ স্থান নেই।

ইউরোপীয় কাউন্সিলের প্রেসিডেন্ট চার্লস মিশেল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বলেন যে, "রাফাহতে আটকে পড়া বেসামরিক নাগরিকদের অনিরাপদ অঞ্চলে সরে যাওয়ার আদেশ অগ্রহণযোগ্য।"

তিনি আন্তর্জাতিক মানবিক আইনের প্রতি শ্রদ্ধাশীল হতে এবং রাফাহতে স্থল অভিযান না চালানোর জন্য ইসরায়েলের প্রতি আহ্বান জানান।

গতকাল গাজার স্বাস্থ্য কর্তৃপক্ষের প্রদত্ত ঘোষণা অনুযায়ী, ইসরায়েল-হামাস সংঘর্ষ শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত ভূখণ্ডটিতে ৩৪,৯৭১ জনের প্রাণহানি ঘটেছে।