জাপানের সঙ্গে দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এগিয়ে নেয়ার উপর দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্টের আলোকপাত

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট ইয়ুন সুক-নিওল বৃহস্পতিবার জাপানের সাথে ভাল সম্পর্ক এগিয়ে নেয়া অব্যাহত রাখায় তার আগ্রহের উপর গুরুত্ব আরোপ করেছেন।

দায়িত্ব পালনের দুই বছর পূর্ণ হওয়ার একদিন আগে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ইয়ুন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন দুই দেশের উচিত হবে যা সহ্য করা উচিত তা সহ্য করে যাওয়ার পাশাপাশি ইতিহাস এবং অমিমাংসিত বিষয়গুলো যে বাঁধা সৃষ্টি করতে পারে তা স্বীকার করে নিয়ে সঠিক পথে এগিয়ে যাওয়া।

ইয়ুন বলেছেন তিনি এবং জাপানের প্রধানমন্ত্রী কিশিদা ফুমিও পারস্পরিক আস্থার অনুভূতি এবং দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক উন্নত করার অভিন্ন আকাঙ্খা পোষণ করেন।

গত মাসের সাধারণ নির্বাচনে দক্ষিণ কোরিয়ার বিরোধী দল নিজেদের সংখ্যাগরিষ্ঠতা বজায় রেখেছে। কেউ কেউ বলেছেন জাপানের প্রতি দেশের নীতি সংশোধন করে নিতে সংসদে আরও বলিষ্ঠ আহ্বানের দিকে এটা নিয়ে যেতে পারে।

ইয়ুন আরও বলেছেন দক্ষিণ কোরিয়ার নিম্ন প্রজনন হারকে জাতীয় একটি জরুরি পরিস্থিতি হিসাবে বিবেচনা করা যেতে পারে এবং সমস্যা সামাল দেয়ার জন্য নতুন একটি মন্ত্রণালয় গড়ে তোলার পরিকল্পনা তিনি ঘোষণা করেছেন।

২০২২ সালের আগস্ট মাসে দায়িত্ব পালনের প্রথম শততম দিবস পালনের পর থেকে এটা ছিল ইয়ুনের আয়োজিত প্রথম প্রেসিডেন্টের সংবাদ সম্মেলন।

কিছু পর্যবেক্ষক গত মাসে ক্ষমতাসীন দলের বিধ্বংসী পরাজয়ের জন্য ইয়ুনের স্বেচ্ছাচারী ধরণের শাসন ব্যবস্থাকে দায়ী করেছেন।

ইয়ুন সম্ভবত বৃহস্পতিবারের সংবাদ সম্মেলনকে তার সরকারের বিভিন্ন পরিকল্পনা বিস্তৃত জনগণের সামনে উপস্থাপনের সুযোগ হিসাবে দেখেছেন।