জাপানের ক্লাউড কম্পিউটিং সেবাপ্রদানকারীদের 'ডেটা সার্বভৌমত্ব'র প্রতি গুরুত্বারোপ

জাপানে ক্লাউড কম্পিউটিং সেবাপ্রদানকারীরা গ্রাহকদের চাহিদায় সাড়া দিয়ে তথাকথিত "ডেটা সার্বভৌমত্ব" পরিষেবার মাধ্যমে নিরাপত্তার মান আরও উন্নত করার পদক্ষেপ নিচ্ছে।

ডেটা সার্বভৌমত্ব বলতে তথ্য-উপাত্তকে দেশের সীমানার মধ্যে এবং স্থানীয় আইন ও নিয়ন্ত্রণের অধীনে রেখে সেগুলোকে সুরক্ষা প্রদান করাকে বোঝায়। ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং আরও বেশ কয়েকটি দেশ তথ্যের সুরক্ষা ব্যবস্থা উন্নত করতে এধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করছে।

ফুজিৎসু জাপানের মধ্যে তথ্য স্থানান্তর এবং মজুদকরণের লক্ষ্যে ২০২৫ অর্থবছরে একটি ক্লাউড কম্পিউটিং পরিষেবা শুরু করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের বৃহৎ তথ্য-প্রযুক্তি কোম্পানি ওরাকলের সাথে যৌথভাবে কাজ করছে।

কর্মকর্তারা বলছেন যে চুক্তি অনুসারে ফুজিৎসুর স্থানীয় ডেটা সেন্টারগুলোর ব্যবহার নিশ্চিত করা হবে এবং কোনও তথ্য দেশের বাইরে পাঠানো হবে না।

সম্পর্কযুক্ত আরেক ঘটনায় জাপানের এনইসি এবং এনটিটি জাপানি কোম্পানিগুলোকে একটি পরিষেবা দেবে যেখানে জেনারেটিভ এআই ব্যবহার হয়। এই ব্যবস্থায় ডেটা সেন্টার ব্যবহার না করে কোম্পানির মধ্যে সার্ভারের মাধ্যমে তথ্য প্রক্রিয়াকরণ হয়।

পরিষেবা প্রদানকারীরা বলছে যে এই ব্যবস্থায় প্রক্রিয়াকরণ ক্ষমতার সীমাবদ্ধতা রয়েছে, তবে অভ্যন্তরীণ মজুদকরণ এবং তথ্য স্থানান্তর সংক্রান্ত বিষয়ে নিরাপত্তার যে চাহিদা, তা এতে পূরণ হবে।