সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংক

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কেন্দ্রীয় ব্যাংক উচ্চ মূল্য কমিয়ে আনার চেষ্টায় বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে আসছে, যা কিছুটা ইতিবাচক প্রভাব নিয়ে এলেও মুদ্রাস্ফীতি বেশিদিন আটকে রাখতে পারেনি। বর্তমানে তারা সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ফেডারেল রিজার্ভের নীতিনির্ধারকরা ২০ বছরেরও বেশি সময়ের মধ্যে সুদের হার সর্বোচ্চে ঠেলে দিয়েছেন। তবে বুধবার টানা ষষ্ঠ বৈঠকে সুদের হার অপরিবর্তিত রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তারা।

নীতিনির্ধারকরা একটি বিবৃতি প্রকাশ করেছেন যেখানে বলা হয় যে, মূল্যবৃদ্ধির বিষয়ে "আরো অগ্রগতির ঘাটতির" সম্মুখীন তারা হয়েছেন এবং মুদ্রাস্ফীতি তাদের ২ শতাংশের লক্ষ্যমাত্রার দিকে "টেকসই" ভাবে যে এগিয়ে যাচ্ছে তা নিয়ে তারা আরও নিশ্চিত হতে চান।

বৈঠকের পর ওয়াশিংটনে এক সংবাদ সম্মেলনে মার্কিন কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রধান জেরোম পাওয়েল বলেন, "আমি শুধু বলতে পারি যে আমরা যখন সেই নিশ্চয়তা লাভ করবো, সুদের হার কমানোর সুযোগ তখন থাকবে, তবে আমি ঠিক জানি না যে সেটা কখন সম্ভব হবে।" তিনি আরও বলেন যে, মূল্য হ্রাস করে আনার বিষয়েও কোন নিশ্চয়তা নেই।

তবে, তিনি এবং তার সহকর্মীরা বলেছেন যে অর্থনীতি একটি "বলিষ্ঠ গতিতে" প্রসারিত হয়েছে এবং কর্মসংস্থান "শক্তিশালী রয়ে গেছে"। তারা আরও বলেন যে, খুব শিগগিরি নীতি পরিবর্তন করা হলে তা তাদের অর্জিত অগ্রগতি বিপরীত দিকে ঠেলে দিতে পারে।