ধ্রুপদী সঙ্গীতের পিয়ানোবাদক ফুজিকো হেমিং ৯২ বছর বয়সে মারা গেছেন

ধ্রুপদী সঙ্গীতের পিয়ানোবাদক ফুজিকো হেমিং ৯২ বছর বয়সে প্রাণত্যাগ করেছেন। ৬০এর কোঠায় শেষের দিকে যখন তার বয়স সেইসময় তিনি তার সর্বাধিক বিক্রি হওয়া প্রথম এলবাম প্রকাশ করেছিলেন। প্রতিকূলতা কাটিয়ে উঠতে সংগ্রাম করতে হওয়ায় এবং উষ্ণ ব্যক্তিত্বের প্রতিফলন ঘটানো উপস্থাপনার জন্য প্রচুর সংখ্যক ভক্তের মন তিনি জয় করেছিলেন।

ফুজিকো হেমিং ফাউন্ডেশন বৃহস্পতিবার ঘোষণা করেছে যে মার্চ মাসে অগ্ন্যাশয়ের ক্যান্সার সনাক্ত হওয়ার পর এপ্রিল মাসের ২১ তারিখে তিনি মারা গেছেন।

সুইডিশ বাবা এবং জাপানি মায়ের পরিবারে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। পাঁচ বছর বয়সে তিনি মায়ের সাথে পিয়ানো শিখতে শুরু করেন।

গুরুত্বপূর্ণ একটি কনসার্টের আগে হেমিং অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং সাময়িকভাবে শ্রবণশক্তি হারিয়ে ফেললেও পিয়ানো বাজানো তিনি অব্যাহত রাখেন।

জীবনের পরবর্তী পর্যায়ে এসে উচ্চতর পারদর্শিতা দেখানো এই সংগীতশিল্পী লিশৎ ও শোপেনের কাজের ব্যাখ্যার জন্য প্রশংসিত হয়েছিলেন।আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতি সম্পন্ন বিভিন্ন অর্কেস্ট্রা দলের সাথে মঞ্চ উপস্থানায় তিনি অংশ নিয়েছেন এবং নব্বই বছর বয়স হয়ে যাওয়ার পরেও উদ্দীপনার সাথে পিয়ানো বাজানো বজায় রেখেছিলেন।