দক্ষিণ কোরিয়ার বিরোধী দলের আইনপ্রণেতাদের বিতর্কিত তাকেশিমা দ্বীপপুঞ্জ পরিদর্শন

দক্ষিণ কোরিয়ার প্রধান বিরোধী দল জানিয়েছে যে, তাদের কয়েকজন আইনপ্রণেতা এবং অন্যান্যরা জাপান সাগরের তাকেশিমা দ্বীপপুঞ্জে অবতরণ করেছেন।

দক্ষিণ কোরিয়া সেই দ্বীপমালা নিয়ন্ত্রণ করে এবং জাপান তার মালিকানা দাবি করে। জাপান সরকার এই অবস্থান বজায় রেখে চলেছে যে দ্বীপগুলি জাপানের অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং দক্ষিণ কোরিয়া অবৈধভাবে সেগুলো দখল করে রেখেছে।

ডেমোক্রেটিক পার্টির একটি আঞ্চলিক শাখা জানায় যে, মঙ্গলবার তিনজন আইনপ্রণেতাসহ ১৭ জন দ্বীপে গিয়ে পৌঁছান। দক্ষিণ কোরিয়ায় দ্বীপগুলো দোকদো নামে পরিচিত।

ইউটিউবে পোস্ট করা একটি ভিডিও ক্লিপে দেখা যায় যে আইনপ্রণেতারা একটি ব্যানার নিয়ে স্লোগান দিচ্ছেন, "দোকদো আমাদের ভূখণ্ড।"

খবরে জানা গেছে যে আইনপ্রণেতারা দ্বীপগুলিকে দক্ষিণ কোরিয়ার ভূখণ্ডের অবিচ্ছেদ্য অংশ এবং এগুলির উপর জাপানের দাবি একেবারেই অগ্রহণযোগ্য বলে উল্লেখ করেছেন।

ডেমোক্রেটিক পার্টির আঞ্চলিক শাখা জানায় যে, দেশের আঞ্চলিক সার্বভৌমত্ব রক্ষার জন্য দলের কর্মকর্তারা আবারও দ্বীপগুলো পরিদর্শন করবেন।

অন্যদিকে, জাপানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় টোকিওতে দক্ষিণ কোরিয়ার দূতাবাসে আইনপ্রণেতাদের তাকেশিমা দ্বীপপুঞ্জ সফর নিয়ে একটি প্রতিবাদ দাখিল করেছে।

মন্ত্রণালয়ের এশিয়া এবং ওশেনিয় বিষয়ক ব্যুরোর মহাপরিচালক নামাযু হিরোইউকি ফোনে দক্ষিণ কোরিয়ার দূতাবাসের জ্যেষ্ঠ কূটনীতিক কিম জং-হিউনকে বলেছেন যে, এই সফর সম্পূর্ণরূপে অগ্রহণযোগ্য এবং অত্যন্ত দুঃখজনক।