চীনের প্রেসিডেন্ট শির সঙ্গে আলোচনা করেছেন যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ব্লিনকেন

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যান্টনি ব্লিঙ্কেন চীন সফরের অংশ হিসেবে শুক্রবার চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেছেন। চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই'র সাথে সাক্ষাতের পর এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বেইজিংয়ে ব্লিনকেনের সঙ্গে আলোচনার শুরুতে শি বলেন দুই দেশের উচিত হবে পরস্পরের অংশীদার হওয়া, প্রতিদ্বন্দ্বী নয়।

তিনি আরো বলেন সংলাপ জোরদার করা এবং সহযোগিতা এগিয়ে নেয়া উভয় দেশের জনগণের অভিন্ন ইচ্ছাই কেবল নয়, আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রত্যাশাও হচ্ছে তাই।

চীনের প্রেসিডেন্ট আরও বলেন যে, গত কয়েক মাসে দুই দেশ যোগাযোগ বজায় রেখেছে এবং কিছু অগ্রগতি নিশ্চিত করেছে। তবে তিনি উল্লেখ করেন যে এখনও অনেক সমস্যা রয়ে গেছে যেগুলো সমাধান করে নেয়া দরকার এবং আরও প্রচেষ্টা চালানোর প্রয়োজনীয়তা তিনি ব্যক্ত করেন।

জবাবে ব্লিনকেন বলেন যে, যুক্তরাষ্ট্র এবং চীন তাদের পার্থক্য সামাল দিতে সক্ষম হচ্ছে এবং ভুল বোঝাবুঝি ও হিসাবে ভুল করা এড়িয়ে যেতে সংলাপ জোরদার করে নিচ্ছে।

শির সাথে বৈঠকের আগে ব্লিনকেন ওয়াং'এর সঙ্গে আলোচনায় মিলিত হন।

চীনা পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ভাষ্যানুযায়ী ওয়াং ব্লিনকেনকে বলেছেন যে তাইওয়ান প্রশ্ন হচ্ছে প্রথম নিষিদ্ধ রেখা চীন-মার্কিন সম্পর্কের বেলায় যা অতিক্রম করা অবশ্যই উচিত হবে না। তাইওয়ানকে অস্ত্র প্রদান বন্ধ করার জন্য যুক্তরাষ্ট্রের প্রতি তিনি আহ্বান জানান বলেও জানা গেছে।

ওয়াং ব্লিনকেনকে আরও বলেছেন যে চীনের অর্থনৈতিক উন্নয়ন দাবিয়ে রাখা যুক্তরাষ্ট্রের উচিত হবে না।

ব্লিনকেন চীনের সাথে যুক্তরাষ্ট্রের সংঘাত প্রত্যাশা করা কিংবা অর্থনৈতিক উন্নয়ন বাধাগ্রস্ত করতে চাওয়া অস্বীকার করেছেন বলে খবরে বলা হয়েছে।

তারা দু'জন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক স্থিতিশীল রাখতে এবং আরও এগিয়ে নিতে নিজেদের প্রচেষ্টা চালানো অব্যাহত রাখতে সম্মত হয়েছেন বলে জানা গেছে।