ইসরায়েলে চালানো হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্র প্রদর্শন ইরানের

ইরান এনএইচকের একজন কর্মীকে এমন কিছু অস্ত্র প্রদর্শন করেছে, যা তাদের দাবি অনুযায়ী, চলতি মাসের শুরুতে ইসরায়েলের দিকে চালানো বড় আকারের ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্রের অনুরূপ।

ইসলামিক বিপ্লবী রক্ষীবাহিনী গতকাল বৃহস্পতিবার এনএইচকে'র ওই কর্মীকে তেহরানের শহরতলীর একটি স্থাপনায় প্রবেশের অনুমতি দেয়, যেখানে দেশীয়ভাবে উৎপাদিত ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোনগুলো প্রদর্শন করা হয়।

ওই স্থাপনার প্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আলী বালালি বলেন, হামলায় ব্যবহৃত অস্ত্রের মধ্যে ছিল ইমাদ ব্যালিস্টিক ক্ষেপণাস্ত্র, পাভেহ ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্র এবং শাহেদ-১৩৬ আত্মঘাতী ড্রোন।

ইমাদের পাল্লা ১ হাজার ৭শ কিলোমিটার হলেও শাহেদ-১৩৬ দুই হাজার কিলোমিটারেরও বেশি পথ পাড়ি দিতে পারে বলে জানা গেছে।

উল্লেখ্য, গত ১লা এপ্রিল সিরিয়ায় ইরানের দূতাবাস প্রাঙ্গণে একটি প্রাণঘাতী হামলার প্রতিশোধ হিসেবে তেহরান গত ১৩ এবং ১৪ই এপ্রিল ইসরায়েলের দিকে ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোন হামলা চালায়। এর পাল্টা-প্রতিক্রিয়ায় একটি সম্ভাব্য ইসরায়েলি প্রতিশোধমূলক হামলার ফলে গত ১৯শে এপ্রিল মধ্য ইরানে একাধিক বিস্ফোরণ ঘটে।