দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ৪টি দেশের জন্য জাপানের নৌ নিরাপত্তা সহায়তার পরিকল্পনা

ফিলিপাইন, ইন্দোনেশিয়া, মালয়েশিয়া এবং ভিয়েতনামের নৌ কর্তৃপক্ষকে দীর্ঘমেয়াদী সহায়তা দেওয়ার পরিকল্পনা করেছে জাপান। দক্ষিণ চীন সাগরে চীনের ক্রমবর্ধমান তৎপরতার মোকাবিলা করার লক্ষ্যে এই পদক্ষেপ নেওয়া হয়।

এনএইচকে জানতে পেরেছে যে জাপান আন্তর্জাতিক সহায়তা সংস্থা বা জাইকা এই চারটি দেশকে সহায়তা প্রদানের লক্ষ্যে একটি ১০ বছর মেয়াদী পরিকল্পনা তৈরি করবে। নিরাপত্তার ক্ষেত্রে এই দেশগুলোকে সরকার শীর্ষ স্থানে বিবেচনা করে।

গত মাসে ফিলিপাইন ও ইন্দোনেশিয়ায় সরেজমিনে জরিপ চালানো হয়। মালয়েশিয়া এবং ভিয়েতনামেও এপ্রিলের দিকে একই ধরনের কার্যক্রম নির্ধারিত রয়েছে।

জাপানি কর্মকর্তারা প্রতিটি দেশের সাথে ড্রোন, রাডার ব্যবস্থা এবং টহল জাহাজ প্রদানের সম্ভাবনার পাশাপাশি মানব সম্পদের উন্নয়ন সম্পর্কেও আলোচনা করবেন।

আগামী বছরের মার্চের মধ্যে এ সংক্রান্ত একটি বিস্তারিত পরিকল্পনা সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে।

উল্লেখ্য, দক্ষিণ চীন সাগরের প্রায় পুরোটাই নিয়ন্ত্রণের অধিকার দাবি করছে চীন।

তিন বছর আগে বেইজিং চীনা উপকূল রক্ষীদেরকে এই অঞ্চলে শক্তি প্রয়োগের অনুমতি দিয়ে একটি আইন প্রণয়ন করে, যে কারণে অন্যান্য দেশগুলো বর্তমানে উচ্চ সতর্কতায় রয়েছে।

জাপানের প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জাতীয় প্রতিরক্ষা সমীক্ষা ইনস্টিটিউটের চীন সংক্রান্ত একজন বিশেষজ্ঞ ইইদা মাসাফুমি বলছেন, চারটি দেশের নৌ নিরাপত্তা সক্ষমতা বৃদ্ধি চীনকে মোকাবিলায় তাদের ব্যাপকভাবে সাহায্য করবে।