নতুন পশ্চিমা সহায়তা ছাড়া ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা হ্রাস পাবে বলে ধারণা

পশ্চিমা দেশগুলো থেকে অতিরিক্ত অস্ত্র সরবরাহ না পেলে রুশ ক্ষেপণাস্ত্র এবং ড্রোনগুলোকে বাধা দেওয়ার জন্য ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা ক্ষমতা হ্রাস পাবে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি বারবার পশ্চিমা নেতাদের কাছে তার দেশের বিমান প্রতিরক্ষা উন্নত করতে নতুন সামরিক সহায়তা চেয়েছেন।

তবে, ইউক্রেনের সবচেয়ে বড় সহায়তাকারী মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র, ইউক্রেনের জন্য ত্রাণ অন্তর্ভুক্ত থাকা একটি জরুরি বাজেট বিল নিয়ে কংগ্রেসে অচলাবস্থার কারণে এখনও কিইভে নতুন সাহায্য পাঠাতে পারেনি।

নিউইয়র্ক টাইমস শুক্রবার জানায় যে মার্কিন সরকারি কর্মকর্তারা মূল্যায়ন করেন যে, ইউক্রেনের কাছে যদি নতুন সরবরাহ নাও পৌঁছায়, তাহলেও আগামী মাস পর্যন্ত টিকে থাকার মতো পর্যাপ্ত পরিমাণে বিমান প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা তাদের কাছে রয়েছে।

যুদ্ধ সমীক্ষা করার একটি মার্কিন গবেষণা প্রতিষ্ঠান শনিবার জানায় যে "সাম্প্রতিক সপ্তাহগুলোতে রুশ হামলা অভিযানের তীব্রতা সম্ভবত ইউক্রেনের বিমান প্রতিরক্ষা ছত্রের উপর আরও চাপ সৃষ্টি করেছে।"

প্রতিষ্ঠানটি সতর্ক করে জানায় যে, যদি রুশ সামরিক বাহিনী ইউক্রেনে রাশিয়ার স্থল আক্রমণের সাহায্য নিয়ে ধারাবাহিকভাবে বড় ধরনের বিমান হামলা পরিচালনা করে, তবে তা ইউক্রেনের জন্য একটি "উল্লেখযোগ্য হুমকি" হয়ে দেখা দেবে।