খারকিভে প্রাণঘাতী ড্রোন হামলার জন্য রাশিয়াকে অভিযুক্ত করেছেন জেলেন্সকি

ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেন্সকি, দেশের পূর্বাঞ্চলীয় শহর খারকিভে ড্রোন হামলায় তিন শিশুসহ সাতজনকে হত্যার জন্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলেছেন।

শুক্রবার থেকে গতকাল শনিবার পর্যন্ত ইউক্রেনের দ্বিতীয় বৃহত্তম শহরটিতে চালানো এই হামলায় একটি তেল মজুদ স্থাপনাতে আঘাত হানা হয়। চুইয়ে পড়া জ্বালানি থেকে সৃষ্ট অগ্নিকাণ্ডে শিশুটির বাবামা'সহ তাদের মৃত্যু হয়।

পুলিশের প্রকাশিত ভিডিওচিত্রে, পুলিশ সদস্যদের পোড়া আবাসিক ভবনে প্রবেশ করতে এবং মানুষদের উদ্ধার করতে দেখা যায়।

গতকাল শনিবার জেলেন্সকি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে পোস্ট করা এক বার্তায়, ওই তিন শিশুর নামোল্লেখ করে নিহতদের স্মরণ করেন।

তিনি বলেন যে, "রুশ সন্ত্রাস" শাস্তির আওতার বাইরে থাকতে পারে না। তিনি, রাশিয়াকে তাদের ধ্বংস করা প্রতিটি জীবনের দায় গ্রহণের দাবিও জানান।

গত বৃহস্পতিবার আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থা বা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতিবেদনে, রুশ হামলায় মারিউপোলে অন্তত ৮ হাজার মানুষের প্রাণহানি ঘটে থাকতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়।

সংস্থাটির, ভূ-উপগ্রহের মাধ্যমে ধারণকৃত প্রধান সমাধিস্থলগুলোর চিত্র বিশ্লেষণের উপর ভিত্তি করে এই অনুমান করা হয়। এতে বলা হয় যে, যুদ্ধকালীন সময় যারা মারা গেছেন তাদের পূর্ণাঙ্গ সংখ্যা কখনোই জানা যাবে না।

ইউক্রেনের ভাষ্যানুযায়ী, রুশ আগ্রাসনে মারিউপোলের মোট প্রায় ৪ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে ২০ হাজারেরও বেশি মানুষ নিহত হয়েছেন। উল্লেখ্য, শহরটি রাশিয়ার নিয়ন্ত্রণে থাকায় হতাহতের বিশদ বিবরণ জানা যয়নি।