এনএইচকে জানিয়েছে যে নোতো ভূমিকম্পের ৩০ জনেরও বেশি ক্ষতিগ্রস্ত ব্যক্তি ঠাণ্ডায় জমে গিয়ে মারা গেছেন

এনএইচকে জানতে পেরেছে যে নববর্ষের দিন আঘাত হানা শক্তিশালী ভূমিকম্পের পর ইশিকাওয়া জেলায় ঠান্ডায় জমে গিয়ে ৩০ জনের বেশি মানুষ মারা গেছেন। এদের অনেকেই উদ্ধারের অপেক্ষায় ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মঙ্গলবার পর্যন্ত জেলায় ২৩৮টি মৃত্যু নিশ্চিত করা হয়েছে। ২২২ জনের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে এনএইচকে জাতীয় পুলিশ এজেন্সির কাছ থেকে তথ্য সংগ্রহ করে। এদের ময়নাতদন্ত পুলিশ ইতিমধ্যে শেষ করেছে।

ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ৯২ জন বা ৪১ শতাংশ চাপা পড়ে মারা গেছেন এবং অন্য ৪৯ জন বা ২২ শতাংশ মারা গেছেন শ্বাস কষ্টে ভুগে কিংবা শ্বাসযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে যাওয়ায়।

৩২ জন, বা ১৪ শতাংশ দেহের তাপমাত্রা হ্রাস পাওয়া হাইপোথার্মিয়ার কারণে মারা গেছেন।

ক্ষতিগ্রস্তদের মধ্যে ২০৪ জন বা ৭০ শতাংশের বেশি যাদের বয়স সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে, তারা হচ্ছেন ৬০ বছর কিংবা বেশি বয়সের মানুষ।

জেলার কর্মকর্তারা ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারবর্গের সম্মতি নিয়ে মৃত্যুর কারণ প্রকাশ করেছেন। তবে এসব মৃত্যুকে "বাড়ি ধসে পড়া" এবং "ভূমিধসের" মত সাধারণ বিভাগের অধীনে তালিকাভুক্ত করা হয়। এবারই প্রথম আরও বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করা হল।